জীবননগর সন্তোশপুর বাসস্টান্ডে চাঁদা না দেওয়ার প্রতিবাদে ভ্যানচালকের ওপর চাঁদাবাজদের হামলায় আহত ৫

জীবননগর সন্তোশপুর বাসস্টান্ডে চাঁদা না দেওয়ার প্রতিবাদে ভ্যানচালকের ওপর চাঁদাবাজদের হামলায় আহত ৫
Content TOP

মামুন মোল্লা, চুয়াডাঙ্গা (১২/১০/১৮)

জীবননগর সন্তোশপুর বাসস্টান্ড মোড়ে প্রতিনিয়ত চাঁদা দিতে দিতে অতিষ্ঠ ভ্যান চালকরা ঘুরে দাড়ানোয় চাদাবাজদের হামলার শিকার হয়েছেন কয়েকজন ভ্যান চালক। ঘটনাটি (৯ অক্টোবর )মঙ্গলবার দুপুর ১২ টায় সংগঠিত হয়েছে। এসময় আহতদেরকে উদ্ধার করে জীবননগর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় জীবননগর থানায় লিখিত অভিযোগ করা হলেও চাঁদাবাজরা ঘুরছে বহাল তবিয়তে। ফলে ভুক্তভোগীদের মধ্যে ব্যাপক ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। ঘটনার শিকার ও প্রত্যক্ষদর্শী সুত্র জানায় জীবননগর উপজেলার সন্তোশপুর বাসস্টান্ড এলাকাটি একটি জনগুরুত্বপুর্ন স্থান। সন্তোশপুর বাসস্টান্ডে একটি সংঘবদ্ধ চাঁদাবাজ চক্র দীর্ঘদিনধরে বাসস্টান্ডে আসা হতদরিদ্র ভ্যান চালকদের থেকে প্রতিদিন ৩০ থেকে ৪০ হারে চাদা আদায় করে আসছিল। কোন ভ্যানচালক চাদার টাকা দিতে অস্বীকার করলে তাকে মারপিট করে এবং সন্তোশপুর বাসস্টান্ডে ভ্যান আটকিয়ে দিতো কিংবা টিউ টয়ার কেটে দিয়ে ক্ষতি সাধন করত। কতিথ চাঁদাবাজরা নিজেদেরকে ক্ষমতাসীন দলের কর্মী দাবী করে দীর্ঘদিন ধরে দাপটের সাথে ভ্যানচালকদের নিকট থেকে চাদা দাবী করে আসছে। এদিকে চাঁদা দিতে দিতে অতিষ্ঠ দরিদ্র ভ্যানচালকরা (৯ অক্টোবর মঙ্গলবার) দপুরের দিকে নড়েচড়ে বসে এবং চাদা দিতে অস্বীকার করে। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে পাঁচজন চাঁদাবাজ ভ্যানচালকদের ওপর হামলা চালিয়ে মারাত্মক ভাবে আহত করে। আহতরা হলেন- উপজেলার দেহাটি গ্রামের শামসুদ্দীন শাহের ছেলে আমির শাহ( ৫০), দুদু শাহের ছেলে মিরাজুল (৩২), বড় খোকার ছেলে আব্বাস শাহ (৩০)আনোয়ার হোসেনের ছেলে আনসার (৩৫), মৃত নসর উদ্দীন শাহের ছেলে নজির শাহ (৬৫) হামলাকারী চাঁদাবাজরা হচ্ছেন উপজেলার সন্তোশপুর গ্রামের ইনা, কাটু, কেরু, ফন্তু ও সবুর। এসব চাঁদাবাজরা দলীয় পরিচয়ে কয়েকজন নেতার আস্থাভাজন হয়ে আওয়মীলীগের রাজনীতিকে প্রশ্নবিদ্ধ করে তুলেছে। এঘটনায় নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক আওয়ামীলীগের এক নেতা বলেন এসব লোকের কারনে এলাকায় রাজনীতি করা বড় দায় হয়ে পড়েছে। এদেরকে যত দ্রুত থামানো যাবে ততই মঙ্গল হবে। অবশেষে ঘটনার ব্যাপারে আজ সকালে জীবননগর থানায় লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে। জীবননগর থানার ডিউটি অফিসার সাব ইন্সপেক্টর সিরাজুল বলেন ঘটনার ব্যাপারে একটি লিখিত অভিযোগ পাওয়া গিয়েছে উর্ধতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশের তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

Content TOP

Related posts

Leave a Reply

body banner camera