brandbazaar globaire air conditioner

“শুভ জন্মতিথি ‘আলোর বাতিঘর’ ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি”

“শুভ জন্মতিথি ‘আলোর বাতিঘর’ ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি”
epsoon tv 1

জাফর আহমেদ শিমুল, সিনিয়র রিপোর্টার।


সালটি ১৯৯৫-এর ৭-ই এপ্রিল,সর্বোচ্চ পর্যায়ের শিক্ষা প্রদানের মহৎ উদ্দেশ্য নিয়ে দৃঢ়চেতা হয়ে বিশ্ববিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠা করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের সাবেক অধ্যাপক ও চেয়ারম্যান মরহুম প্রফেসর ডঃ এবিএম মফিজুল ইসলাম পাটোয়ারী।


ড.এবিএম মফিজুল ইসলাম পাটোয়ারী বাংলাদেশের একজন প্রথিতযশা ও গুণী আইনের লেখক ও মানবাধিকার বিজ্ঞানী ছিলেন। প্রফেসর ডঃ পাটোয়ারী তাঁর জীবদ্দশায় ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি(ডিআইইউ) সহ তিনি রংপুর ও গাইবান্ধা জেলাতে বিভিন্ন স্কুল,কলেজ, মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠা করেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের ২৫ বছর পেরিয়ে এই গৌরবোজ্জল ২৬ বছরে পা রাখায় আনন্দে-সানন্দে জানাচ্ছি শুভ জন্মদিন হে প্রিয় আলোর বাতিঘর ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি,শুভ জন্মদিন!


বর্তমান বোর্ড অব ট্রাস্টিজের চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার শামীম হায়দার পাটোয়ারী এমপি এবং ভাইস চেয়ারম্যান ডাক্তার শহীদুল কাদির পাটোয়ারী এর দক্ষতায় এগিয়ে চলেছে ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি।এছাড়া ট্রাস্টি বোর্ডের অন্যতম সদস্য এ্যাডভোকেট শাহেদ কামাল পাটোয়ারী বিশ্ববিদ্যালয়টির উন্নয়নে ভূমিকা রাখছেন।

উপাচার্য অধ্যাপক ড.কে এম মহসিন মৃত্যুবরণ করার পরে গণপ্রজাতন্ত্রী সরকার ও মহামান্য রাষ্ট্রপতি মোঃআব্দুল হামিদের দাপ্তরিক আদেশের মধ্য দিয়ে সম্প্রতি উপ-উপাচার্য হিসেবে ডুয়েটের সাবেক ডিন অধ্যাপক ড.গণেশ চন্দ্র সাহা আনুষ্ঠানিক ভাবে যোগদান করেছেন।


এছাড়াও প্রতিষ্ঠাতার সহ-ধর্মীনি প্রয়াত এ্যাডভোকেট রোকেয়া ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়টির প্রতিষ্ঠাকালীন সময় ভূমিকা রাখেন।


ট্রেজারার হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ম্যানেজমেন্ট বিভাগের সাবেক অধ্যাপক ও চেয়ারম্যান প্রফেসর ডঃ মইনুল ইসলাম । বর্তমানে বিশ্ববিদ্যালয়ের চারটি অনুষদের অধীনে নয়টি বিভাগের কার্যক্রম সূচারুরূপে পরিচালিত হচ্ছে । প্রথম থেকে ষষ্ঠ কনভোকেশন পর্যন্ত প্রায় ২০ হাজার ছাত্র-ছাত্রী পাশ করে বেরিয়েছে। বর্তমানে বিশ্ববিদ্যালয়টিতে ৭ হাজারের অধিক ছাত্র-ছাত্রী রয়েছে।

ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি এদেশের বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে অন্যতম শীর্ষস্থানীয় একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় । বর্তমানে শতাধিক বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে মাত্র হাতেগোনা কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয় তাদের স্থায়ী ক্যাম্পাস স্থাপন করতে পেরেছে ।তার মধ্যে ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অন্যতম ।

ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ক্যাম্পাস এক একরের অধিক জায়গার উপর অবস্থিত । বর্তমানে পার্মানেন্ট ক্যাম্পাসে চারটি ডিপার্টমেন্টের একাডেমিক কার্যক্রম চলছে । বিভাগ গুলোর মধ্যে ইংরেজি ,সমাজবিজ্ঞান ,ফার্মেসি ও সিভিল ইঞ্জনিয়ারিং অন্যতম । পার্মানেন্ট ক্যাম্পাসে সবুজে ঘেরা এক মনোরম পরিবেশ তৈরি করা হয়েছে। একে গ্রীন ক্যাম্পাস বললে অত্যুক্তি হবে না।


ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি থেকে পাশ করা গ্রাজুয়েটরা দেশ-বিদেশের বিভিন্ন নামকরা অর্গানাইজেশনে সুনামের সাথে কাজ করে যাচ্ছেন । এই ইউনিভার্সিটির পাশকৃত গ্র্যাজুয়েটরা এরই মধ্যে উল্লেখযোগ্য অংশ হিসেবে বিসিএস এর বিভিন্ন ক্যাডারে কর্মরত।

বাংলাদেশের স্বনানধন্য টেলিভিশন চ্যানেলে সংবাদ পাঠক, রিপোর্টার,প্রডিউসার ও চলচ্চিত্র পরিচালক হিসেবেও সুনাম কুড়াচ্ছে । একবিংশ শতাব্দীর চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় ঢাকা ইউনিভার্সিটির অভিজ্ঞ শিক্ষকেরা ছাত্র-ছাত্রীদের কে যোগ্য নাগরিক হিসেবে তৈরি করছেন। ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ছাত্র-ছাত্রীরা শুধু একাডেমিক কার্যক্রমে নিজেদের মেধাকে সীমাবদ্ধ রাখেননি।

বছরের বিভিন্ন সময়ে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ফুটবল টুর্নামেন্ট, ক্রিকেট টুর্নামেন্ট , কম্পিউটার প্রোগ্রামিং কম্পিটিশন ,ইনডোর গেমস, ইন্টার্নেশনাল টুর ,ন্যাশনাল টুরের আয়োজন করেছেন। ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি ডিবেটিং ক্লাব ইতিমধ্যে বেশ কয়েকবার জাতীয় পর্যায়ে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করেছেন ।

ট্রাস্টি বোর্ডের বর্তমান চেয়ারম্যান শামীম হায়দার পাটোয়ারী এমপি এর পৃষ্ঠপোষকতায় ক্লাবটিতে বেশ কয়েকজন আন্তর্জাতিক মানের বিতার্কিক তৈরি হয়েছে। ডিআইইউ সর্বশেষ জাতীয় বিতর্কে বিইউবিটিকে যুক্তিতর্কে ধরাশায়ী করে চ্যাম্পিয়নশীপ জিতে নিয়েছে। 


ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি’র বিভিন্ন ডিপার্ট্মেন্টে অধ্যয়নরত ও মূল ধারার গণমাধ্যমে কর্মরত শিক্ষার্থীদের নিয়ে গঠিত অন্যতম সেরা সংগঠন’ডিআইইউ সাংবাদিক সমিতি’ নামে একটি শক্তিশালী ও সারা বাংলাদেশের পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিক সমিতি/ফোরাম/প্রেসক্লাব গুলোর সঙ্গে পাল্লা দিয়ে দেশের গণমাধ্যমে অবিরাম কাজ করে যাওয়া ও দেশীয় গণমাধ্যমে শক্তিশালী অবদান রেখে যাওয়া।

পাশাপাশি ইংলিশ ডিপার্টমেন্টের শিক্ষার্থীদের নিয়ে গঠিত সৃষ্টিশীল সংগঠন ‘এলিট ইংলিশ ক্লাব’।


ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি’র বনানী, গ্রীন রোড এবং পার্মানেন্ট ক্যাম্পাস সাঁতারকুল বাড্ডা সহ তিনটি লাইব্রেরীতে প্রায় ৫০ হাজারের অধিক বই রয়েছে । বছরে দুবার জার্নাল অব ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি প্রকাশিত হয়। তাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকগণ তাদের গবেষণামূলক আর্টিকেল প্রকাশ করে থাকেন।

ইউনিভার্সিটি প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে ২৫ বছর সাফল্যের সাথে পার করেছে এরকম বিশ্ববিদ্যালয়ের সংখ্যা হাতে গোনা মাত্র কয়েকটি । তার মধ্যে ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অন্যতম।প্রতিষ্ঠাতার স্বপ্ন ছিল ঢাকা ইন্টান্যাশনাল ইউনিভার্সিটি কে একটি বিশ্বমানের বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে গড়ে তোলার ।

এদেশের নিম্নবিত্ত ও মধ্যবিত্ত শ্রেণীর ছাত্র ছাত্রীরা যেনো উচ্চ শিক্ষার সুযোগ পায় সেজন্য প্রতিষ্ঠাতা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ গ্রহণ করেন। প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে আমরা তাকে শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করি। অল্প কয়েকদিনের মধ্যেই ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি আয়োজন করতে যাচ্ছে সপ্তম কনভোকেশন।


বর্তমানে এ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে ছাত্র ছাত্রীরা বিভিন্ন বিভাগে পড়াশোনা করছে। বর্তমানে বিদেশি ছাত্র-ছাত্রী সংখ্যা প্রায় চার শতাধিক। উন্নত মানের শিক্ষা এবং দক্ষ ও যোগ্য নাগরিক গড়ে তোলার আত্মপ্রত্যয় ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির সকল শিক্ষক কর্মকর্তা কর্মচারী সহ সকল ছাত্র-ছাত্রী নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে ।

ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি প্রতিষ্ঠাতা প্রফেসর ডঃ এ বি এম মফিজুল ইসলাম পাটোয়ারী তার জীবদ্দশায় ২০টির অধিক বই এবং শতাধিক গবেষণামূলক আর্টিকেল প্রকাশ করেছেন। এছাড়াও তিনি হিউম্যানিস্ট এন্ড ইথিক্যাল অ্যাসোসিয়েশন অফ বাংলাদেশ নামে একটি এনজিও প্রতিষ্ঠা করেন।বর্তমান বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ মুজিব বর্ষ উপলক্ষে এ বছর মুজিব আইটি কার্নিভাল আয়োজন করেন।

এ বছরের ৭ ও ৮ ই মার্চ এ বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ইন্টারন্যাশনাল কনফারেন্সের আয়োজন করেন বাড্ডার স্থায়ী ক্যাম্পাস সাতারকুলে । সেখানে দেশের ও বিদেশের বিখ্যাত একাডেমিশিয়ানরা তাদের গবেষণামূলক প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন।


এছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্তমান কার্যকরী পদক্ষেপ হিসেবে পার্মানেন্ট ক্যাম্পাসে আরও একটি ১০ তলা ভবনের কাজ দ্রুতগতিতে এগিয়ে চলেছে।

ছাত্র-ছাত্রীদের আবাসনের জন্য সাতারকুলসহ ঢাকার নিকুঞ্জে রয়েছে আটটি হোস্টেল। বিশ্ববিদ্যাল বিভিন্ন জাতীয় দিবস ও অন্যান্য দিবন সমূহ নির্দেশনা মোতাবেক যথাযথভাবে পালন করে থাকে। ভাটারা থানা থেকে স্থায়ী ক্যাম্পাসে আসা যাওয়ার জন্য বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ শাটল সার্ভিসের ব্যবস্থা করেছে। ছাত্র ছাত্রীদের স্বাস্থ্য সুরক্ষার জন্য এ বিশ্ববিদ্যালয় রয়েছে হেলথ সার্ভিস ডিপার্টমেন্ট।


বিশ্ববিদ্যালয়টিতে আরও রয়েছে আই কিউ এ সি সেল, টি সি আর সি সেল এবং হিউম্যান রাইস এন্ড এডভোকেসি সেল ইত্যাদি। যা এই বিশ্ববিদ্যালয়টিকে আরও সমৃদ্ধ করে তুলেছে।


এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়টিতে রয়েছে বিভিন্ন বিভাগের প্রাক্তন ছাত্রদের সংগঠন এ্যালামনাই এ্যাসোসিয়েশন। যে সংগঠনটির মধ্য দিয়ে বিভিন্ন সময় নতুন-পুরনো শিক্ষার্থীদের মিলনমেলা অনুষ্ঠিত হয়। ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল সাংবাদিক সমিতি,এলামনাই এসোসিয়েশন, ‘এলিট ইংলিশ ক্লাব,ডিআইইউ ডিবেটক্লাব,’ল ক্লাব,সিভিল ক্লাব,প্রথম আলো বন্ধু সভা(ডিআইইউ শাখা), ‘সোশিওলজি ক্লাব’ সহ প্রতিটি সংগঠন মিলে হাতে হাতে রেখে দূর্দান্ত দাপটের সঙ্গে এগিয়ে চলেছে ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি।

ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি শিক্ষা বিতরণের পাশাপাশি দেশীয় সাহিত্য, সংস্কৃতি, আইন,সংবিধান,খেলাধুলা,সুস্থ বিনোদন ও সামাজিক কর্মকান্ড পরিপূর্ণ ভাবে চর্চার মধ্য দিয়ে দেশের মূলধারার শিক্ষায় সর্বোচ্চ অবদান রাখবে ও দেশ ও সমাজকে প্রকৃতি ও সুশিক্ষায় আলোকিত করবে ‘আলোর বাতিঘর’ ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি’র কাছে এটাই কাম্য!”


epsoon tv 1

Related posts

body banner camera