বিশ্বকাপের সেরা একাদশে সাকিব-মুশফিক

বিশ্বকাপের সেরা একাদশে সাকিব-মুশফিক
Content TOP

বিশ্বকাপে ক্যারিয়ার সেরা ফর্মে আছেন টাইগার অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। অলরাউন্ড নৈপুণ্য দেখিয়ে একের পর এক রেকর্ড গড়ছেন তিনি। পিছিয়ে নেই মি ডিপেন্ডেবল মুশফিকুর রহিমও। রান তোলায় আর ডিসমিসালের দিক দিয়ে দ্বাদশ বিশ্বকাপ মুশফিকের সেরা আসর হয়ে থাকবে।

সবমিলিয়ে খেলোয়াড়দের প্রায় মাসখানেকের ব্যাট-বলের দুর্দান্ত লড়াই বিমুগ্ধ করেছে ক্রিকেটপ্রেমীদের। এখন পর্যন্ত নিখাঁদ বিশ্বমঞ্চের পারফরম্যান্সের ওপর ভিত্তি করে দল তৈরি করা হলে কারা সুযোগ পাবেন? একনজরে দেখে নেয়া যাক সেই সেরা একাদশ।

ডেভিড ওয়ার্নার: স্বপ্নের ফর্মে আছেন অস্ট্রেলিয়ার এ বাঁহাতি ওপেনার। টুর্নামেন্টে সর্বোচ্চ রান স্কোরার তিনি। ওপেনিংয়ে আর অন্য কাউকে ভাবার অবকাশই দিচ্ছেন না বিস্ফোরক বাঁহাতি ব্যাটসম্যান।

অ্যারন ফিঞ্চ: অস্ট্রেলীয় ব্যাটিং লাইনআপের অন্যতম শক্তি তিনি। আসরে সর্বোচ্চ রান সংগ্রহকারী তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন এ ওপেনার। যেকোনো পরিস্থিতিতে ম্যাচ বের করার ক্ষমতা রাখেন অজি কাপ্তান। স্বভাবতই ওপেনিংয়ে ওয়ার্নারের সঙ্গী হবেন ফিঞ্চ।

বিরাট কোহলি: ভারতের ব্যাটিং শক্তির মূল স্তম্ভ তিনি। আগ্রাসী মনোভাব আর রান তোলার বিচারে ওয়ানডাউনে থাকছেন ডানহাতি ব্যাটার। এবারের বিশ্বকাপটাও দুর্দান্ত কাটছে তার।

সাকিব আল হাসান: তাকে কেন বিশ্বের অন্যতম সেরা অলরাউন্ডার বলা হয়, চলতি বিশ্বকাপে তা বারবার প্রমাণ করে চলেছেন তিনি। ব্যাট-বল দুই ক্ষেত্রেই অনবদ্য এ টাইগার। দলকে একাই জেতাচ্ছেন সাকিব। স্পিন অলরাউন্ডারের ভূমিকা পালন করবেন তিনি।

জো রুট: বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের পারফরম্যান্সে ঘটা করে ভাটা পড়েছে। তবে স্বমহিমায় উজ্জ্বল রুট। প্রতি ম্যাচেই ব্যাট হাতে রান পাচ্ছেন তিনি। প্রতিপক্ষের পার্টনারশিপ ভাঙতে বল হাতেও কার্যকর এ ইংলিশ। পার্টটাইমার হিসেবে খেলবেন ডানহাতি ব্যাটসম্যান।

কেন উইলিয়ামসন: বিশ্বকাপ যত এগোচ্ছে, ততই ছন্দে ফিরছেন তিনি। নিউজিল্যান্ডকে সেমিফাইনালের দৌড়ে রাখার মূল কারিগর উইলিয়ামসন। যেকোনো পিচেই স্বচ্ছন্দ্যে ব্যাট করতে পারেন তিনি। মিডলঅর্ডারে দায়িত্বে থাকছেন এ কিউই। অধিনায়কত্বের দায়িত্বও পালন করবেন।

মুশফিকুর রহিম: বাংলাদেশের নির্ভরতার প্রতীক তিনি। বড় রানের টার্গেট দিতে বা তাড়া করে ম্যাচ জেতাতে টাইগারদের ভরসা মুশফিক। দলের উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন মিস্টার ডিপেন্ডেবল।

বেন স্টোকস: বিশ্বকাপে শ্রীলংকার বিপক্ষে তার একার অদম্য লড়াই এখনো টাটকা ক্রিকেটপ্রেমীদের মনে। স্লগ ওভারে নির্মম ব্যাটিংয়ে বিপক্ষকে দুমড়ে-মুচড়ে দিতে পারেন তিনি। আবার বল হাতেও সমান ভয়ঙ্কর স্টোকস। দলে পেস অলরাউন্ডারের ভূমিকা পালন করবেন ইংল্যান্ড তারকা।

মিচেল স্টার্ক: চলতি বিশ্বকাপে দুরন্ত ছন্দে রয়েছেন অস্ট্রেলীয় এ ফাস্ট বোলার। বল হাতে তার রানআপ রক্তচাপ বাড়িয়ে দেয় বিশ্বের বাঘা বাঘা ব্যাটসম্যানদের। এ মুহূর্তে সর্বোচ্চ উইকেট নেয়ার তালিকায় এক নম্বরে তিনি। এ দলে পেস আক্রমণে নেতৃত্ব দেবেন স্টার্ক।

মোহাম্মদ আমির: বিষাক্ত সুইং আর গতির মেলবন্ধনে বিপক্ষের ব্যাটিং লাইনআপকে একাই ধসিয়ে দিতে পারেন তিনি। স্লোয়ার হোক বা বাউন্সার- বোলিং বৈচিত্রে চলতি বিশ্বকাপে ভয়ংকর তিনি। দলের পেস আক্রমণে স্টার্কের সঙ্গী এ বাঁহাতি পেসার।

ইমরান তাহির: দক্ষিণ আফ্রিকার আশা শেষ। তবে বোলিংয়ে মুগ্ধ করছেন এ ডানহাতি লেগস্পিনার। তার স্পিনের ফাঁদে ধরা পড়ছেন বহু বড় বড় ব্যাটসম্যান। দলের স্পিন আক্রমণে নেতৃত্ব দেবেন তিনি।

Content TOP

Related posts

body banner camera