চলন্ত বাসে তরুণীকে ধর্ষণের চেষ্টা, চালককে গণধোলাই

চলন্ত বাসে তরুণীকে ধর্ষণের চেষ্টা, চালককে গণধোলাই
Content TOP

সোনারগাঁ-গুলিস্তান রুটের স্বদেশ পরিবহনের একটি চলন্ত বাসে এক তরুণীকে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। সোমবার (১০ জুন) রাত সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলার মেঘনা নিউ টাউন এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ সময় জনতা অভিযুক্ত গাড়ির চালককে আটক করে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছে।

অভিযুক্ত চালক শামীম মিয়া উপজেলার সাদিপুর ইউনিয়নের নানাখী মধ্যপাড়া গ্রামের আব্দুর রব মিয়ার ছেলে। ঘটনার পর হেলপার পালিয়ে গেছে, পুলিশ বাস জব্দ করে থানা নিয়ে এসেছে। মঙ্গলবার সকালে ওই তরুণী বাদি হয়ে সোনারগাঁ থানার মামলা দায়ের করেছেন।

জানা যায়, ওই তরুণী গজারিয়া এলাকায় একটি ফ্যাক্টরিতে অপারেটর হিসেবে কর্মরত আছেন। ঈদের ছুটি কাটিয়ে রাত ৯টার দিকে গুলিস্তান এসে গজারিয়া ফিরতে স্বদেশ পরিবহনের ওই বাসে ওঠেন।

বাসটি মোগরাপাড়া চৌরাস্তায় এলে সব যাত্রী নেমে যায়। ওই তরুণী যাত্রীদের সঙ্গে নেমে যাওয়ার সময় চালক শামীম তাকে মেঘনা ঘাট নামিয়ে দেওয়ার কথা বলে। বাসটি আষাঢ়িয়ারচর এলাকায় এলে চালক হেলপারের কাছে ড্রাইভিং ছেড়ে দিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়।

উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের মেঘনা নিউ টাউন শপিং কমপ্লেক্সের ব্যবসায়ীরা দোকান বন্ধ করে রাত সাড়ে ১০টার দিকে মার্কেটের সামনে গাড়ির জন্যে অপেক্ষা করছিলেন। এ সময় ওই বাসটি (ঢাকা মেট্টো-ব-১১-৭২৬৫) থামাতে বললে গাড়িটি দ্রুতগতিতে চলে যায়। এ সময় তার বাস থেকে এক কিশোরীর বাঁচাও বাঁচাও চিৎকার শুনতে পান।

পরে উপস্থিত জনগণ গাড়িটি থামিয়ে দেখতে পান, চালক শামীম তরুণীকে নিয়ে ধস্তাধস্তি করছেন। এ সময় তাকে উদ্ধার করে চালকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করা হয়। এ সময় হেলপার পালিয়ে যায়।

সোনারগাঁ থানার অফিসার ইনচার্জ মনিরুজ্জামান জানান, অভিযুক্তকে ও আটককৃত বাসটি থানা হেফাজতে রয়েছে। ওই তরুণী মামলা দায়ের করেছেন।

Content TOP

Related posts

body banner camera