brandbazaar globaire air conditioner
ব্রেকিং নিউজঃ

এক প্যাকেট চকলেট ৪ দিনেই শেষ করতেন কোহলি!

এক প্যাকেট চকলেট ৪ দিনেই শেষ করতেন কোহলি!
epsoon tv 1

বর্তমান সময়ের সেরা ক্রিকেটার ধরা হয় ভারতীয় অধিনায়ক বিরাট কোহলিকে। আধুনিক ক্রিকেটে উদাহরণও ধরা হয় তাকে। মাঠে তার উপস্থিতি কিংবা আগ্রাসী মনোভাব, ব্যাটিংয়ে ক্ষিপ্রতা এবং ধারাবাহিকতা, সবকিছু মিলিয়ে ‘কমপ্লিট প্যাকেজ’ ধরা হয় তাকে। আর সবকিছুর মূলে তার ফিটনেস। প্রায়ই বিভিন্ন সাক্ষাৎকারে কোহলি তার ফিটনেস নিয়ে কথা বলে থাকেন, ফিটনেসের গুরুত্ব বুঝান। এবার অবশ্য মুদ্রার ওপিঠের কথাও জানিয়েছেন। একসময় নাকি নিজেই সচেতন ছিলেন না ফিটনেস নিয়ে!

সম্প্রতি জাতীয় দলে তার সতীর্থ মায়াঙ্ক আগারওয়ালের সঙ্গে এক ভার্চুয়াল আলাপে নিজের ক্যারিয়ারের ঝাঁপি খুলে দিয়েছেন কোহলি। জানিয়েছেন টেস্ট ক্রিকেটে কিভাবে ধারাবাহিক হয়েছেন। সাধারণ মানের ক্রিকেটার থেকে কিভাবে নিজেকে নিয়ে গেছেন বিশ্বসেরাদের তালিকায়। এবার জানালেন তার ফিটনেসের রহস্যও।

গল্পে গল্পে আগারওয়াল জানতে চাইলেন, ফিটনেস নিয়ে কেন এতোটা সিরিয়াস হলেন কোহলি? তাতে বেশ মজার উত্তরই দিয়েছেন ভারতীয় অধিনায়ক। জানালেন, একসময় নিজেও ঠিক সচেতন ছিলেন না।

কোহলি বলেন, ২০১২ সালের ঘটনা। আইপিএল খেলছিলাম তখন। প্রায়ই থাকতাম বেঙ্গালুরুর হোটেল আইটিসি গার্ডেনিয়ায়। ওদের মিনিবারে চকলেটের প্যাকেট থাকতো। শেষ হওয়ার আগেই ওটা ভর্তি করে দেয়া হতো। আর আমি সারাদিন ওটাই খেতাম। এমনও হয়েছে, ৪-৫ দিনেই ৪০ চকলেটের একটা প্যাকেট শেষ করে ফেলতাম।

তবে দ্রুতই নিজের ভুল বুঝতে পারেন বিরাট। তিনি বলেন, সেসময় ভাবতাম বিশ্বকাপ জিতেছি (২০১১ সালে), আইপিএল খেলছি, আমি অনেক কিছু। পরে বুঝলাম, আমার আরো ভালো কিছু করার আছে। তারপরই সব ছেড়েছুড়ে দিলাম। ফিটনেস নিয়ে ভাবতে বসলাম।

স্রেফ আত্মোপলব্ধি অতি সাধারণ ক্রিকেটার থেকে বিশ্বসেরাদের কাতারে এনেছে বিরাট কোহলিকে। অবশ্যই শিক্ষণীয় ঘটনা তো বটেই।

 

 

 

 

 

 

epsoon tv 1

Related posts

body banner camera