brandbazaar globaire air conditioner

আশুলিয়ায় শিক্ষক কতৃক শিক্ষার্থীসহ অভিভাবক লাঞ্ছিতর শিকার

আশুলিয়ায় শিক্ষক কতৃক শিক্ষার্থীসহ অভিভাবক লাঞ্ছিতর শিকার
Content TOP

 

সুচিত্রা রায়,আশুলিয়া প্রতিনিধিঃ
ঢাকার সাভারস্থ আশুলিয়ায় পলাশবাড়ি বটতলা এলাকার ক্রিয়েটিভ স্কুলে মঙ্গলবার(৩ সেপ্টেম্বর) কোচিং না করায় মুক্তা নামের দশম শ্রেনীর এক ছাত্রীকে পিটিয়ে আহত করেছে স্কুলটির সহকারী শিক্ষক শবু।
পরের দিন বুধবার(৪ সেপ্টেম্বর)এর প্রতিবাদ করায় পুনরায় মুক্তা ও তার মা কে প্রকাশ্যে মারধর করে আটকে রাখে স্কুলটির প্রধান শিক্ষক ও তার ছেলে ইমরান হোসেন। খবর পেয়ে বুধবার(৪ সেপ্টেম্বর) দুপুরে আশুলিয়া থানা পুলিশ তাদেরকে উদ্ধার করেন। এ ব্যাপারে,মুক্তার পিতা সাগর শেখ জানান ,পলাশবাড়ী ক্রিয়েটিভ স্কুলের প্রধান শিক্ষক আব্দুল কাদের একজন অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্য।সে স্কুলের অন্য ছাত্র-ছাত্রীকেও কোচিং করতে বাধ্য করে।আমার মেয়ে স্কুলে কোচিং না করায় তিনি তাকে মারপিট করে সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত একটি কক্ষে আটকে রাখে। মুক্তার মা কুলসুম আক্তার জানান,আমার মেয়েকে মারধর করার কারন জানতে চাইলে প্রধান শিক্ষক আব্দুল কাদের রেগে গিয়ে অশ্লীল ভাষায় গালাগালি করে বলেন, তোরা আমার বিচার করতে এসেছিস, তোদের ব্যবস্থা নিচ্ছি। এরপর তিনি তার ছেলে ইমরানকে ফোন করে ডেকে এনে বাবা ও ছেলে মিলে আমাদেরকে প্রকাশ্যে মারধোর করে আটকে রাখে।
প্রসঙ্গতঃ স্কুলটির ৪র্থ তলায় মুক্তা পরিবারের সাথে বসবাস করে।
জানতে চাইলে ক্রিয়েটিভ স্কুলের প্রধান শিক্ষক আব্দুল কাদের বিষয়টি অস্বীকার বলেন, এধরনের কোনো ঘটনাই ঘটে নাই।
এ ব্যাপারে,আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আব্দুস সালাম জানান,ছাত্রী মূক্তা ও তার মা কুলসুম আক্তারকে উদ্ধার করা হয়েছে।জিজ্ঞাসাবাদে যতটুকু জানা গেছে,স্কুলটির ৪র্থ তলায় মুক্তারা ভাড়ায় বসবাস করে,যেহেতু স্কুল কর্তৃপক্ষ ভবনটির মালিক তাই ভাড়া বকেয়া থাকা নিয়ে মুক্তা ও তার পরিবারের সাথে ক্ষিপ্ত হলে উভয় পক্ষ বাক বিতন্ডায় জড়িয়ে পড়ে।

Content TOP

Related posts

body banner camera