ব্রেকিং নিউজঃ

সুষ্ঠুভাবে নির্বাচন করার সক্ষমতা ইসির আছে: সিইসি

সুষ্ঠুভাবে নির্বাচন করার সক্ষমতা ইসির আছে: সিইসি
bodybanner 00

সঠিক সময়ে সুষ্ঠুভাবে জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠানে নির্বাচন কমিশন (ইসি) প্রস্তুত রয়েছে। এ ক্ষেত্রে ইসির যথেষ্ট সক্ষমতাও আছে। সাংবিধানিকভাবে নির্বাচন অনুষ্ঠানে পিছিয়ে যাওয়ার আর কোনো সুযোগ নেই। কমিশন চায়, সব রাজনৈতিক দলই নির্বাচনে অংশগ্রহণ করুক। তবে কেউ নির্বাচনে না এলে আলাদা করে আর কোনো দলের সঙ্গে বসার আর সুযোগ ও সময় নেই।

মঙ্গলবার বিকেলে দিনাজপুরে জেলা প্রশাসন ও আইনশৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর সঙ্গে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে মতবিনিময় সভা শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নুরুল হুদা এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, সব রাজনৈতিক দল ও জনগণ চাইলে আগামী সংসদ নির্বাচনে ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ব্যবহার করা হবে। তবে তা সীমিত পরিসরে।

প্রধান নির্বাচন কমিশনার বলেন, প্রযুক্তির সঙ্গে এগিয়ে যাওয়ার জন্য নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহার করতে চাই। তবে এ ক্ষেত্রে আইনের পরিবর্তনের দরকার। এ জন্য আইন মন্ত্রণালয়ে প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে। এই প্রস্তাব আইনে পরিণত হলে সীমিত আকারে ইভিএম ব্যবহার করা হবে।

নির্বাচনের সম্ভাব্য তারিখ সম্পর্কে সিইসি বলেন, এ ব্যাপারে কমিশন এখনও সিদ্ধান্ত নেয়নি। তবে আগামী ৩১ অক্টোবর থেকে আগামী বছরের জানুয়ারি মাসের ২৮ তারিখের মধ্যেই নির্বাচন হবে। নির্বাচনের সম্ভাব্য তারিখ ২৭ ডিসেম্বর কি না, জানতে চাইলে তিনি বলেন, এই ঘোষণা তারা দেননি। এটি ইসির সিদ্ধান্ত নয়। তিনি জানান, তফশিল ঘোষণার পর ইসির বৈঠকে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে, সেনাবাহিনী ব্যবহারের প্রয়োজনীয়তা দেখা দিয়েছে কি না।

দিনাজপুরের জেলা প্রশাসক ড. আবু নঈম মুহাম্মদ আবদুছ ছবুরের সভাপতিত্বে এ সভায় আরও বক্তব্য দেন, নির্বাচন কমিশনের যুগ্ম সচিব খন্দকার মিজানুর রহমান, দিনাজপুর পুলিশ সুপার সৈয়দ আবু সায়েম, দিনাজপুর বিজিবি ব্যাটালিয়ন কমান্ডার লে. কর্ণেল মোর্শেদুর রহমান, র‌্যাব-১৩-এর দিনাজপুর ক্যাম্প কমান্ডার মেজর সোহেল হোসেন, আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা (রংপুর) জিএম সাহাতাব হোসেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাহফুজ্জামান আশরাফ, সদর সার্কেল অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুশান্ত সরকার, ভারপ্রাপ্ত আনসার এ্যাডজুটেনন্ট মোতালেব হোসেন, ডিজিএফআই-এর উপ-পরিচালক জুলফিকার রহমান, এনএসআই উপ-পরিচালক মঞ্জুরুল ইসলাম মামুন, জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা দেলোয়ার হোসেন, বীরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তোফাজ্জল হোসেন, সদর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা জাহিদ ইবনে ফজল প্রমুখ।

এর আগে সকালে সিইসি জেলার ১৩টি উপজেলার নির্বাচন কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলোচনা করেন। এ সময় তিনি নির্বাচন কার্যালয় ঘুরে দেখেন এবং ফলজ বৃক্ষ রোপন করেন।

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

bodybanner 00