সুন্দরগঞ্জের এমপি লিটন হত্যা মামলার স্বাক্ষ্য গ্রহন শুরু

সুন্দরগঞ্জের এমপি লিটন হত্যা মামলার স্বাক্ষ্য গ্রহন শুরু
bodybanner 00

ফরহাদ আকন্দ, গাইবান্ধা প্রতিনিধি :
গাইবান্ধা-১ (সুন্দরগঞ্জ) আসনের সরকারদলীয় সাংসদ মনজুরুল ইসলাম লিটন হত্যা মামলার স্বাক্ষ্য গ্রহন শুরু হয়েছে। তার ছোট বোন বাদী ফাহমিদা বুলবুল কাকলী আদালতে স্বাক্ষ্য দিয়েছেন।

আজ রোববার (০৮ এপ্রিল) দুপুরে গাইবান্ধা জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক রাশেদা সুলতানা বাদী ফাহমিদা বুলবুল কাকলীর স্বাক্ষ্য গ্রহন করেন। এর মাধ্যমে আদালতে দেশব্যাপী চাঞ্চল্যকর এই হত্যা মামলার স্বাক্ষ্যগ্রহন শুরু হলো।

আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) মো. শফিকুল ইসলাম শফিক বলেন, সাংসদ মনজুরুল ইসলাম লিটন হত্যা মামলায় তার ছোট বোন বাদী ফাহমিদা বুলবুল কাকলী আজ আদালতে স্বাক্ষ্য দিয়েছেন। এর মাধ্যমে আদালতে দেশব্যাপী চাঞ্চল্যকর এই মামলার স্বাক্ষ্যগ্রহন শুরু হলো।

তিনি আরও বলেন, সাক্ষ্যগ্রহনে বাদী ফাহমিদা বুলবুল কাকলী বলেছেন, সাবেক সাংসদ আবদুল কাদের খান ও অন্যান্য আসামীরা সাংসদ মনজুরুল ইসলাম লিটনকে হত্যা করেছেন বলে তিনি বিভিন্ন পত্র-পত্রিকা ও টেলিভিশনে দেখেছেন। তিনি তার ভাইয়ের হত্যাকারীদের সর্বোচ্চ শাস্তি চান বলেও জানান পিপি শফিকুল ইসলাম।

উল্লেখ্য, গাইবান্ধা-১ (সুন্দরগঞ্জ) আসনের সাংসদ মনজুরুল ইসলাম লিটন সুন্দরগঞ্জের সর্বানন্দ ইউনিয়নের সাহাবাজ গ্রামে ২০১৬ সালের ৩১ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় দুর্বৃত্তদের গুলিতে আহত হলে রাতেই রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি। পরে এ ঘটনায় পরদিন সুন্দরগঞ্জ থানায় তার ছোট বোন ফাহমিদা বুলবুল কাকলী একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

bodybanner 00