সিলেটে আইনজীবী সমিতি নির্বাচেনে সভাপতি হয়েছেন মোহাম্মদ লালা, সাধারণ সম্পাদক মো. আব্দুল কুদ্দুছ

সিলেটে আইনজীবী সমিতি নির্বাচেনে সভাপতি হয়েছেন মোহাম্মদ লালা, সাধারণ সম্পাদক মো. আব্দুল কুদ্দুছ
bodybanner 00

হাসনাত জামাল রোমেল, সিলেট প্রতিনিধি :   সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতির বার্ষিক ২০১৮ নির্বাচনে দ্বিতীয়বারের মতো সভাপতি পদে নির্বাচিত হয়েছেন মোহাম্মদ লালা। আর সাধারণ সম্পাদক পদে মো :আব্দুল কুদ্দুছ।   গতকাল বৃ্হস্পতিবার সকাল ১০টা থেকে বিকেল সাড়ে ৪টা পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে সমিতির ২নং বার হলের ২য় তলায় লাইব্রেরী কক্ষে অনুষ্ঠিত হয়। ভোটগ্রহণ শেষে রাতে ফলাফল ঘোষণা করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার মো. এমদাদুল হক অ্যাডভোকেট ও সহকারি নির্বাচন কমিশনার মো. নুরুল আমিন অ্যাডভোকেট ও সহকারি নির্বাচন কমিশনার গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী অ্যাডেভোকেট। সভাপতি পদে নির্বাচিত মোহাম্মদ লাল পান সর্বোচ্চ ৫২৫ ভোটে। তার নিকটতম প্রার্থী আব্দুল গফফার পান ২৬৮ ভোট। মো. মিনহাজ উদ্দিন খান ১৮৭ ও মো. জামিলুল হক জামিল পান ১৮৬ ভোট।
সিলেটে আইনজীবী সমিতি নির্বাচেনে সভাপতি হয়েছেন মোহাম্মদ লালা, সাধারণ সম্পাদক মো. আব্দুল কুদ্দুছসাধারণ সম্পাদক পদে মো. আব্দুল কুদ্দুছ পান ৬৬২ ভোট।অপর প্রার্থীদের প্রাপ্ত ভোট হচ্ছে, হোসেন আহমদ (৩০৩ ভোট), আনছারুজ্জামান (৭৬ ভোট) ও মো. ওবায়দুর রহমান (২১ ভোট)। ১ম সহ-সভাপতি পদে নির্বাচিত হয়েছেন মো. শফি আহমদ (৭০৬ ভোট)। তার নিকটতম প্রার্থী মো. মোছলেহ উদ্দিন পান ৩৯৬ ভোট। ২য় সহ-সভাপতি পদে নির্বাচিত মো. আনোয়ার হোসেন পান ৫৮৩ ভোট। তার নিকটতম প্রার্থী মো. আলী হায়দার পান ৪৪৫ ভোট। যুগ্ম সম্পাদক পদে নির্বাচিত দু’জন হলেন- এন.আই.এম মাছুম চৌধুরী (৫৫৭ ভোট) ও মোহাম্মদ আব্দুছ ছাত্তার (৬১৯ ভোট)। অপর প্রার্থী জোহরা জেসমিন পান ৫০৯ ভোট ও মো. সফিকুল ইসলাম পান ২৭২ ভোট।

সমাজ বিয়ষক সম্পাদক পদে মো. দেলোয়ার হোসেন ৬৬৬ ভোট পেয়ে বিজয়ী হেয়েছেন। তার নিকটতম প্রার্থী রাশিদা সাঈদা খানম পান ৪৭২ ভোট। সহ-সমাজ বিষয়ক সম্পাদক পদে বিজয়ী মো. অহিদুর রহমান চৌধুরী পেয়েছেন ৭৪৬ ভোট ও তার নিকটতম প্রার্থী মো. সুহেল মিয়া পেয়েছেন ৩৫৫ ভোট। লাইব্রেরী সম্পাদক পদে ৫৬২ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন মোছা. রাহমা খানম রিমা। তার নিকটতম প্রার্থী সিরাজ উদ্দিন খান পেয়েছেন ৫৫০ ভোট। প্রধান নির্বাচন কমিশনার পদে ৭০৪ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন জ্যোতির্ময় পুরকায়স্থ (কাঞ্চন)।তার নিকটতম প্রার্থী মো. আলিম উদ্দিন পেয়েছেন ৪২৭ ভোট। সহকারি নির্বাচন কমিশনার পদে বিজয়ী হয়েছেন পান্না লাল দাস (৬৩১ ভোট) ও মো. মখলিছুর রহমান (৫৯৭ ভোট)। সহকারি নির্বাচন কমিশনার পদে অপর প্রার্থী মোহাম্মদ আব্দুল হান্নান পেয়েছেন ৪৭৯ ভোট।

সহ-সম্পাদক পদে বিজয়ী তিন জন হলেন- ইমরান আহমদ (৪৮১ ভোট), মো. রব নেওয়াজ রানা (৬৫১ ভোট) ও মো. হেদায়াত হোসেন তানভীর (৫২০ ভোট)। অপর প্রার্থীদের প্রাপ্ত ভোট হলো- মো. আজমল হোসেন (৩৭৫ ভোট), মো. আব্দুল্লাহ আল হেলাল (১৭৭ ভোট), মো. বাবুল মিয়া (৩২৩ ভোট), মোহাম্মদ ছায়াদ মিয়া (১৬৪ ভোট), মোহাম্মদ হুমায়ুন কবির (১০০ ভোট) ও রঞ্জু দেবনাথ (২৭৪ ভোট)।

কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য পদে বিজয়ী এগার জন হলেন- মো. আব্দুশ শহিদ (৮৯১ ভোট), নোমাদ মাহমুদ (৮২৮ ভোট), মো. আখতার হোসেন খান (৮২৭ ভোট), আব্দুল মালিক(৮১৮ ভোট), মো. আব্দুল ওদুদ (৮১১ ভোট), এ.কে.এম. ফখরুল ইসলাম (৭৯৩ ভোট), এ.এস.এম. আব্দুল গফুর (৭৮৮ ভোট), মো. আব্দুল মান্নান চৌধুরী (৭৩৭ ভোট), কঙ্কন কুমার রায় (৬৯৩ ভোট), প্রহলাদ চন্দ্র দেব (৬১২ ভোট) ও মো. ইবরাত হোসেন চৌধুরী (৫৮৫ ভোট)।

কার্যনির্বাহী পদে অপর তিন জনের প্রাপ্ত ভোট হলো- মোহাম্মদ ফজলুর রব (৫৭০ ভোট), সিরাজুল ইসলাম (৫৪৭ ভোট) ও মো. মফিজুর রহমান (৫৩৮ ভোট)।

নির্বাচনে ১১টি সদস্য পদের বিপরীতে মোট ১৪ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

bodybanner 00