সিরাজদিখানে রাস্তা নির্মাণের টাকা আত্মসাৎ

bodybanner 00

সিরাজদিখানে ৪০ দিনের কর্মসূচির প্রকল্পর মাধ্যমে রাস্তা নির্মাণে টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে। উপজেলা কোলা ইউনিয়নের পূর্ব কোলা গ্রামের মাসজিদ থেকে কোলা কবরস্থান হয়ে মিনার হোসেনের বাড়ী পর্যন্ত ৩৫০ মিটার রাস্তা ব্যয় ধরা হয় ৩ লক্ষ ৬০ হাজার টাকা। ৬ মাসে ১০০ মিটার রাস্তার কাজ সমাপ্ত হয়। বাজেটের পুরো টাকা উত্তোলন করলেও বাকী কাজ শেষ হয়নি।

সিরাজদিখানে রাস্তা নির্মাণের টাকা আত্মসাৎ

এলাকাবাসী ও কোলা ইউপি সদস্যদের কাছ থেকে জানা যায়, কাজটি ৪ নং ওয়ার্ডে হলেও দায়িত্ব দেওয়া হয় ৮ নং ওয়ার্ড সদস্যকে। কাজের দায়িত্বে ৮নং ওয়ার্ড সদস্য মো. জাহাঙ্গীর সভাপতি ও মহিলা ইউপি সদস্য (৪,৫,৬ নং ওয়ার্ড) রওশন আরা বেগমকে সচিব করে প্রকল্পটি দেওয়া হয়। আরো জানা যায়, ৩ ভাগের ১ ভাগ কাজ করে তারা সম্পূর্নœ টাকা উত্তোলন করে নেয়। যতটুকু কাজ হয়েছে তাতে ১ লক্ষ ৩০ হাজার টাকার বেশী খরচ হওয়ার কথা নয় বলে তারা জানান।

এব্যাপারে মহিলা ইউপি সদস্য রওশন আরা বেগম জানান, কাজের ৩ লক্ষ ৬০ হাজার টাকা উত্তোলন করতে প্রকল্প অফিস খরচ রেখে দিয়ে ২ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা আমাদের দেয়। বর্তমানে জাহাঙ্গীর মেম্বারের কাছে ৩৫ হাজার টাকা রয়েছে। আমি কোন টাকা আত্মসাদ করি নাই।

ইউপি সদস্য জাহাঙ্গীর জানান, বর্ষার জন্য কাজ শেষ করতে পারি নাই। মাটিরও সমস্যা রয়েছে। অল্প কাজ বাকী আছে, ১০ দিনের মধ্যে করে দেব। পুরো টাকা পেয়েছি। আমাকে চেয়ারম্যান দায়িত্ব দিয়েছে তার সাথে কথা বলেন।

কোলা ইউপি চেয়ারম্যান মীর লিয়াকত আলরী সাথে এ বিষয়ে একাধিক বার যোগাযোগ করা হলেও তিনি ব্যস্ততা দেখিয়ে এড়িয়ে যান।

উপজেলা প্রকল্প অফিসার কাজী ইমতিয়াজ আশফাক ট্রেনিংএ থাকায় তার সাক্ষাৎকার নেওয়া যায়নি।

About The Author

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

bodybanner 00