সার্চ ইংলিশের কল্যাণে জীবন বদলে যাওয়া আহাদদের গল্প!

সার্চ ইংলিশের কল্যাণে জীবন বদলে যাওয়া আহাদদের গল্প!
bodybanner 00

sony tv

মোঃ শরীফুল আলম

হতো দরিদ্র পরিবারে বেড়ে উঠা কিশোর আাহাদ প্রয়োজনের তাগিদে অতি কষ্টের কাজ প্রতিদিন ১০-১৫ টি বহুতল ভবনে প্রত্রিকার হকারীর কাজ নেয়। প্রত্রিকা বিলি করে সারা দিন সে খুবই ক্লান্তবোধ করতো, তাই লেখা পড়া ও অন্য কিছু করার আগ্রহ পেতো না।

সার্চ ইংলিশের কল্যাণে জীবন বদলে যাওয়া আহাদদের গল্প!
প্রত্রিকা বিলি কাজটা কষ্ট লাগতো বলে সে অন্য কি করার যায় তা নিয়ে ভাবতো। আহাদের বাবা ঢাকা জিগাতলার একটি বাড়ির কেয়ারটেকার, সেই সূত্রে আহাদকে তার বাবার কাজেও সাহায্য করতে হতো। একদিন সে একটা টিউশনি পেয়ে যায় মোহাম্মদপুরের বসিলায়, কিন্তু ইংরেজি না জানার জন্য সাতদিন পর তার টিউশনি চলে যায়, তখন সে খুবই কষ্ট পায়। কিন্তু আহাদ হাল ছেড়ে না দিয়ে ভালো ইংরেজি শিক্ষার প্রতিজ্ঞা করে, তখন সে ফেসবুকে সার্চ ইংলিশ গ্রুপের সন্ধান পেলো। সার্চ ইংলিশ গ্রুপ ইংরেজি দূর্বলদের জন্য ইংরেজি শিক্ষার এক অনন্যা প্ল্যাটফর্ম। আহাদ সার্চ ইংলিশ গ্রুপে সময় দিতে থাকলো, সার্চ ইংলিশে অডিও আড্ডা প্রতিদিন সময় দিয়ে শুনতো এবং এক সময় সে নিজে অডিও আড্ডায় ইংরেজিতে কথা বলতে শুরু করলো। কথা বলতে বলতে তার ইংরেজি বলার ধরনে গতি আসতে লাগলো। কমদামী স্মার্টফোনের টাচ ভাঙ্গা ছিলো বলে সে সার্চ ইংলিশ গ্রুপে কোন কমেন্ট লিখতে পারতো না।
তাই আহাদ তার বাবা ও বড় ভাইয়ের সহয়তায় একটি ল্যাপটপ কিনে ফেলে। এক সময় বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া যে বন্ধুরা তার ইংরেজি বলা নিয়ে তাকে ঠাটা করতো, এখন সেই বন্ধুরাই তার সাথে টাকার বিনিময়ে ঘন্টা হিসাবে ইংরেজিতে কথা বলে তাদের স্পোকেন ইংলিশ উন্নতি করার জন্য। এখন সে একজন সফল কন্টেন রাইটার। আর তার ইংলিশে স্পোকেন শুনলে যে কেউ অবাক না হয়ে পারবে না। তাই সে সার্চ ইংলিশ ও প্রতিষ্ঠাতা স্বপ্নবাজ রাজিব আহমেদের প্রতি চির কৃতজ্ঞ।

আব্দুল আহাদের মতো এরকম ইব্রাহিম খলিল, জান্নাত কাদের চৌধুরী, মৌসুমী আক্তার সেতু, সাদ্দাম ছানাউল্লাহ, সোনীয়া ইসলাম খান, সিনথিয়া জান্নাতি, কেয়া ও সার্চ ইংলিশ চ্যাম্পিয়ান অনু সহ সকলের গল্পের ভিন্নতা থাকলেও সার্চ ইংলিশের কল্যানে সবার সফলতা একই রকম।
সার্চ ইংলিশ দিনে দিনে দেশীও ঘন্ডি পেরিয়ে আন্তর্জাতিক ভাবে ইংলিশ শিক্ষার প্ল্যাটফর্ম হিসাবে পরিচিতি পাচ্ছে। সার্চ ইংলিশ এ দেশের একমাত্র গ্রুপ যাকে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ নিজে প্রমোট করছে। এই গ্রুপের বর্তমান মেম্বার সংখ্যা পাঁচ লক্ষাধিক ছাড়িয়ে গেছে স্বল্পতম সময়ে।
ফেসবুকে Serch English লিখে সার্চ দিলেই এই গ্রুপ যে কেউ খুজেঁ পাবে। এই গ্রুপের একটি ওয়েব সাইড আছে www.serchenglish.com নামে।

Related posts

5 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

bodybanner 00