ব্রেকিং নিউজঃ

শ্রীপুরে ব্যবসায়ীর সাত লাখ টাকা নিয়ে মার্কেটিং অফিসার উধাও

শ্রীপুরে ব্যবসায়ীর সাত লাখ টাকা নিয়ে মার্কেটিং অফিসার উধাও
bodybanner 00

সাগর আহামেদ মিলন গাজীপুর প্রতিনিধিঃ-
গাজীপুর শ্রীপুরের উপজেলার মাওনা চৌরাস্তার মেসার্স এফ.এন ট্রেডার্সের মার্কেটিং অফিসার মো. মনিরুজ্জামান প্রায় ৭ লাখ টাকা নিয়ে উধাও হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় পদ্মা অয়েল কোম্পানীর, উপজেলার মাধখলা কেমিক্যাল অফিসার মো. তারিফ রহমান গাজীপুরের শ্রীপুর থানায় অভিযোগ করেছেন। অভিযোগে বলা হয়েছে, পদ্মা অয়েল কোম্পানী লি: কর্তৃক নিয়োগ প্রাপ্ত মার্কেটিং অফিসার মনিরুজ্জামান মাওনা চৌরাস্তার মেসার্স এফ.এন ট্রেডার্সের দোকানে দীর্ঘদিন ধরে কাজ করে আসছে। গত ২৮ জানুয়ারি সকালে কোম্পানী থেকে প্রায় ৪ লাখ টাকার (ফুরাডান) পদ্মা অয়েল কোম্পানীর ডিলার মেসার্স এফ.এন ট্রেডার্সের মালিক নুরুজ্জামানকে দেওয়ার কথা বলে নিয়ে আসে।
শ্রীপুরে ব্যবসায়ীর সাত লাখ টাকা নিয়ে মার্কেটিং অফিসার উধাওস্থানীয় ডিলারকে মালগুলো বুঝিয়ে না দিয়ে গোপনে মনিরুজ্জামান বিভিন্ন বাজারে নগদ টাকায় বিক্রি করে উধাও হয়ে যায়। সন্ধ্যায় অফিসে না ফেরায় তাকে ফোন করলে সে আমাকে উল্টো বিভিন্ন ধরনে হুমকি প্রদান করেন এবং মোবাইল ফোনটি বন্ধ করে রাখেন। এ ব্যাপারে পদ্মা অয়েল কোম্পানী লিমিটেড এর ডিলার, মেসার্স এফ.এন ট্রেডার্সের মালিক নুরুজ্জামান বলেন, আমার দোকের মার্কেটিং অফিসার মনিরুজ্জামান প্রায় সাত বছর ধরে কাজ করে আসছে। বিভিন্ন সময় তার দায়িত্বে অবহেলা ও বিক্রিত মালের টাকার হিসেব নিয়ে গড়মিল করতে দেখা যায়। একাধিকবার তাকে সতর্কও করা হয়েছে। এ নিয়ে (কেমিক্যাল ম্যানেজার) মনিরুজ্জামানের আপন চাচা সিরাজুল ইসলামের কাছে অভিযোগ করা হয়েছিল। সে বিষয়টি দেখবেন বলে আমাকে জানিয়েছিলেন। গত ২৮ জানুয়ারি মনিরুজ্জামান আমার কথা বলে কোম্পানী থেকে ৪ লাখ টাকার (ফুরাডান) এনে বিভিন্ন জায়গায় নগদ টাকায় বিক্রি করে সে উধাও হয়ে যায়। এবং আমার দোকানে থাকা অবস্থায় ৩ লাখ টাকার মালামাল নগদ বিক্রি করে টাকা নিজের পকেটে রাখেন । সব মিলে প্রায় সাত লক্ষ টাকা নিয়ে সে উধাও হয়ে যায়।
তিনি জানান, এ নিয়ে পদ্মা অয়েল কোম্পানী লি: এর ডিভিশনাল ম্যানেজার বরাবর অভিযোগ করা হয়েছে। অভিযুক্ত মনিরুজ্জামান ফরিদপুর জেলার ভাঙ্গা উপজেলার কুমারখালী গ্রামের মাহবুব আলম ঔরফে লাল মিয়ার ছেলে। সে শ্রীপুর উপজেলার কেওয়া পশ্চিম খন্ড গ্রামের হাজী নুরুজ্জামানের বাসায় ভাড়া থেকে চাকরী করতেন।

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

bodybanner 00