শেহজাদ একাই এক শ!

শেহজাদ একাই এক শ!
bodybanner 00

মহেন্দ্র সিং ধোনি তাঁর প্রিয় ক্রিকেটার। পছন্দ করেন ভারতীয় উইকেটকিপার ব্যাটসম্যানের মতোই ঝড় তুলতে। সেই ধোনিকে সাক্ষী রেখে আজ দুবাইয়ে মোহাম্মদ শেহজাদ চড়াও হলেন ভারতীয় বোলারদের ওপর । আফগান উইকেটকিপার ব্যাটসম্যানের সেঞ্চুরিতে ভারতকে ২৫৩ রানের লক্ষ্য দিয়েছে আফগানিস্তান।

অদ্ভুত এক ইনিংসই খেললেন শেহজাদ। সতীর্থ ব্যাটসম্যানরা যেখানে স্বচ্ছন্দে এগোতে পারেননি, আফগান ওপেনার শুরু থেকেই পেটাতে শুরু করেছেন ভারতীয় বোলারদের। আফগানিস্তানের স্কোর যখন ৫২, শেহজাদের রানই ৪৫! শেহজাদ ফিফটি পেলেন ভাগ্যের ছোঁয়ায়। ৪৯ রানে দাঁড়ানো আফগান ওপেনার ৯ম ওভারের পঞ্চম বলে মিড অফে ক্যাচ তুলে দিয়েছিলন, হাতে জমাতে পারেননি অম্বাতি রাইডু। শেহজাদ সেঞ্চুরিও পেলেন ভাগ্যের ছোঁয়ায়। ২১তম ওভারে খলিল আহমেদের বলে কটবিহাইন্ডের আউট দিয়ে দিয়েছিলেন আম্পায়ার। ৯৩ রানে দাঁড়িয়ে থাকা শেহজাদ রিভিউ নিলেন। টিভি রিপ্লেতে দেখা গেল বলটা তাঁর ব্যাটে নয় বাহুতে লেগেছে। ব্যস, আর তাঁকে পায় কে! ওয়ানডে ক্যারিয়ারের প্রথম তিন ম্যাচে দুই সেঞ্চুরি পাওয়া শেহজাদ পঞ্চমবারের তিন অঙ্ক ছুঁলেন, সেটি প্রিয় খেলোয়াড় ধোনিকে সাক্ষী রেখে!

শেহজাদ যখন সেঞ্চুরি করেছেন আফগানিস্তানের রান তখন ৪ উইকেটে ১৩১। আর এতেই রেকর্ড বইয়ে নাম উঠে গেছে তাঁর। ২০০৫ সালে কানপুরে ভারতের বিপক্ষেই শহীদ আফ্রিদি যখন সেঞ্চুরি করেন তখন পাকিস্তানের স্কোর ছিল ১৩১। দলীয় স্কোরের ৭৬ শতাংশ রানই তাঁর। ১৩ বছর পর আফ্রিদির রেকর্ড ছুঁলেন শেহজাদ। ৩৮ ওভারে কুলদীপ যাদবের বলে লং অফে দিনেশ কার্তিকের ক্যাচ হওয়ার আগে শেহজাদের রান ১১৬ বলে ১২৪। মিডল অর্ডারে ব্যর্থতা আর শেহজাদ ফিরে যাওয়ার পরও আফগানিস্তান লড়াইয়ের স্কোর পেয়েছে সাতে নামা মোহাম্মদ নবীর ৫৬ বলে ৬৪ রানের সৌজন্যে।

গত বছর জানুয়ারিতে ভারতীয় দলের অধিনায়কত্ব ছেড়ে দেওয়ার পর আবারও অধিনায়কত্ব করছেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। সেটি অবশ্যই ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক রোহিত শর্মা বিশ্রাম নেওয়ায়। ৬৯৬ দিন পর ধোনি তাহলে ‘ভারপ্রাপ্তের ভারপ্রাপ্ত’ হিসেবে অধিনায়কত্ব করছেন! অধিনায়ক হিসেবে অবশ্য এটি ধোনির ২০০তম ওয়ানডে। এই ম্যাচে বিশ্রামে আছেন ভারতের আরেক ওপেনার শিখর ধাওয়ান। নেই ভুবনেশ্বর-বুমরা-চাহালও।

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

bodybanner 00