রাজা-হবু রাজা লড়াই

রাজা-হবু রাজা লড়াই
bodybanner 00

রিয়াল-পিএসজি ম্যাচ রোনালদো-নেইমারের লড়াই? ফাইল রিয়াল-পিএসজি মুখোমুখি আজ রাতেচ্যাম্পিয়নস লিগে এখনো পর্যন্ত সবচেয়ে আকর্ষণীয় ম্যাচমেসি-রোনালদো লড়াইয়ের মতোই এটি রোনালদো-নেইমার লড়াইনেইমারকে পেতে রিয়ালের ইচ্ছা এই দ্বৈরথে আলাদা রঙ ছড়াচ্ছেমেসি বনাম রোনালদো—এক দশক ধরে ফুটবল বিশ্ব এটাই দেখে আসছে। রিয়াল-বার্সেলোনা ম্যাচ, সেরা খেলোয়াড়ের লড়াই বা ব্যালন ডি’অরের মঞ্চ; সব জায়গাতেই একই দ্বৈরথ। এ দুজনের পর কে? প্রায় সবার মুখেই একটি নাম—নেইমার। যাঁকে পেতে উঠেপড়ে লেগেছে রিয়াল মাদ্রিদ।

চ্যাম্পিয়নস লিগে পিএসজির মুখোমুখি যখন রিয়াল, অনেকেই অবলীলায় বলে দিচ্ছেন লড়াইটি আসলে রিয়াল বনাম নেইমার। তা চ্যাম্পিয়নস লিগে রিয়ালের হ্যাটট্রিক শিরোপা জয়ের আশা বাঁচিয়ে রাখতে মূল ভরসা ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। ইউরোপ শ্রেষ্ঠত্বের মুকুট প্রথমবারের মতো মাথায় তুলতে পিএসজি যে নেইমারের দিকেই তাকিয়ে, তা নতুন করে বলার আর কী আছে। সেদিক থেকে রিয়াল-পিএসজি ম্যাচের অন্য নাম তো রোনালদো বনাম নেইমারই।
জিনেদিন জিদান যদিও তা মানতে রাজি নন। ম্যাচপূর্ব সংবাদ সম্মেলনে কাল রিয়াল কোচ সোজা বলে দিলেন, ‘ওরা অসাধারণ দুজন খেলোয়াড়, তবে ম্যাচটা রিয়াল বনাম পিএসজিই। নেইমার বনাম রোনালদো নয়।’ কিন্তু জিদানের এই কথাটা মানতে ফুটবল রোমান্টিকদের বয়েই গেছে!
নেইমারকে পেতে রিয়ালের ইচ্ছা দ্বৈরথে বাড়তি আকর্ষণ জাগাচ্ছে। ক্লাব সভাপতি ফ্লোরেন্তিনো পেরেজ তো সেটি আগেই বলেছেন। দুই দিন আগে রিয়ালের ব্রাজিলিয়ান ডিফেন্ডার মার্সেলোও বলেছেন, ‘আমি মনে করি, নেইমার একদিন রিয়ালে খেলবে।’ ৩৩ বছর বয়সী রোনালদোর ক্যারিয়ারে এখন পড়ন্ত বেলা। রিয়ালে নাম লেখালে বার্নাব্যুর রাজমুকুট হয়তো ২৬ বছর বয়সী নেইমারের মাথায়ই উঠবে। সেদিক থেকে রোনালদো-নেইমারের আজকের দ্বৈরথটির নাম দিতে পারেন, রাজা-হবু রাজার লড়াই!
রাজমুকুট তাঁর মাথায়ই মানায়—এটা প্রমাণ করতে রোনালদো নিশ্চয়ই মরিয়া থাকবেন। মৌসুমের শুরুতে তাঁর ‘দুই রূপ’ নিয়ে কত কথা! লিগে এক রোনালদো, চ্যাম্পিয়নস লিগে আরেক। লিগে যেখানে গোল পাচ্ছিলেন না, চ্যাম্পিয়নস লিগে তাঁর গোল করা
থামছিলই না। গ্রুপ পর্বে সব কটি ম্যাচে গোল করার রেকর্ড গড়েছেন, সব মিলিয়ে নয়টি—যা গ্রুপ পর্বে সর্বোচ্চ। একটা মাইলফলকও হাতছানি দিচ্ছে, আর এক গোল হলেই শুধু রিয়ালের জার্সিতে চ্যাম্পিয়নস লিগে ১০০ গোল হয়ে যাবে।
চ্যাম্পিয়নস লিগ আবার ঘনিয়ে আসতেই কিনা রোনালদোও ফিরেছেন স্বরূপে। লিগে সর্বশেষ ম্যাচে করেছেন হ্যাটট্রিক। শুধু কি তা-ই? প্রথম ১৮ ম্যাচে যেখানে তাঁর অবদান মাত্র ৪ গোল, সেখানে সর্বশেষ চার ম্যাচেই ৭টি। তাতে হঠাৎই আবিষ্কৃত হলো, সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে রোনালদোর গোলও এখন হয়ে গেছে ২৩টি। গত মৌসুমে ঠিক এই পর্যায়ে, অর্থাৎ চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ ষোলোর আগে সব মিলিয়ে তাঁর গোল ছিল এর চেয়েও দুটি কম! তা রোনালদোর সাফল্য-ক্ষুধা কি এত অল্পতে মেটে? ‘আমি সব সময়ই সর্বোচ্চ ভালো খেলাটা উপহার দিতে উন্মুখ থাকি’—রিয়াল মাদ্রিদ ডটকমকে বলেছেন পর্তুগিজ তারকা।
এ মৌসুমেই বার্সেলোনা থেকে পিএসজিতে নাম লেখানো নেইমারও প্যারিসে নিজের রাজ্যপাটটা ভালোই গুছিয়ে নিয়েছেন। সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে পিএসজির হয়ে ২৭ ম্যাচে গোল করেছেন ২৮টি, সতীর্থদের দিয়ে করিয়েছেন ১৪ গোল। ফুটবল বিশ্বে কথিত আছে, মেসির ছায়া থেকে বেরোতেই বার্সেলোনা থেকে প্যারিসে যাত্রা নেইমারের। তা ছায়া থেকে বেরিয়ে কতটা নিজের হয়েছেন, ন্যু ক্যাম্প থেকে ৫০০ কিলোমিটার দূরে বার্নাব্যুতে নেইমারের আজ এর প্রমাণ দেওয়ারও রাত। আর সেই প্রমাণ দিতে তাঁকে ছাপিয়ে যেতে হবে রাজা রোনালদোকে!
রোমাঞ্চকর এক দ্বৈরথ দেখার অপেক্ষায় থাকতেই পারে বিশ্বজোড়া ফুটবল রোমান্টিকরা।

Facebook Comments

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

bodybanner 00