ব্রেকিং নিউজঃ

মারমুখী ব্যাটিংই করতে চান লিটন

মারমুখী ব্যাটিংই করতে চান লিটন
bodybanner 00

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে আবু হায়দার রনির পথচলা আড়াই বছরের। কিন্তু এখনও ওয়ানডে-টেস্ট খেলতে পারেননি তিনি। অন্যদিকে লিটন দাস আন্তর্জাতিক ক্রিকেট প্রায় তিন বছর। সব ফরম্যাটেই দলে সুযোগ পেয়েছেন। কিন্তু থিতু হতে পারেননি এখনও। এবার তিনি ওয়ানডে দলে পাকাপাকি জায়গা করে নিতে চান। শুধু কি তাই। হতে চান তামিমের ভরসা দেওয়ার মতো একজন ওপেনিং সঙ্গী।

এশিয়া কাপে ওপেনার হিসেবে লিটন দাসের ওপরই ভরসা রাখছে বাংলাদেশ দল। সুযোগটা কাজে লাগাতে পারলে ওয়ানডে দলে একপ্রকার ‘স্থায়ী’ লিটন। সেটা লিটনেরও অজানা নয়। বড় টুর্নামেন্টে চ্যালেঞ্জটাও মাথায় আছে তার। তবে দলে সুযোগ ধরে ধারার জন্য নিজের ব্যাটিংয়ের ধরণের সঙ্গে আপস করবেন না তিনি। এশিয়া কাপে আক্রমণাত্মক ব্যাটিং করবেন বলেও জানিয়ে দিয়েছেন।

বুধবার মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে লিটন বলেন, ‘এশিয়া কাপটা আমার জন্য ভালো এক সুযোগ। আমি অনেকদিন ধরে ওয়ানডে দলের বাইরে। সুযোগ পেলে অবশ্যই ভালো করার চেষ্টা করব। এখন পারফর্ম করার চেয়ে তো আর ভালো কিছু নেই। আপনারা রান চান, আমিও রান চাই। বড় টুর্নামেন্টে যাচ্ছি, রান করা অবশ্যই বড় চ্যালেঞ্জ হবে। নিজের শতভাগ দেওয়ার চেষ্টা থাকবে।  সে অনুযায়ী অনুশীলন করছি।’

লিটনের সহজাত খেলার ধরণ মারমুখী ব্যাট করা। টি-২০ ফরম্যাটে সেটির প্রমাণ ভালোভাবেই রেখেছেন তিনি। নিজের সর্বশেষ টি-২০তে খেলেন ৩২ বলে ৬১ রানের ঝকঝকে এক ইনিংস। ফরম্যাট বদলালেও ব্যাটিংয়ের ধরন বদলাবে না বলে জানান লিটন। তিনি বলেন, ‘একেকজনের খেলার ধরন একেক রকম। আমার খেলার ধরনটাও এমন, আমি আক্রমণাত্মক খেলতেই পছন্দ করি।’

লিটন দাস কেবল চান তার সহজাত ব্যাটিং করে ধারাবাহিক হতে। তিনি বলেন, ‘আমি বোলারদের ওপর চড়াও হতে ইনিংস শুরু করতে চাই। উইকেটে পড়ে থাকলেই তো চলবে না, রানও করতে হবে। আর রান করতে হলে, ব্যাটও চালাতে হবে। এখন বিবেচনা করতে হবে, কোন শটটি খেললে রান পাওয়া যাবে।’

আফগানিস্তানের বিপক্ষে দেরাদুনে তিন ম্যাচের টি-২০ সিরিজে বাংলাদেশ স্পিনে ভালোই ভুগেছে। বিশেষ করে রশিদ খানের বলে। শুরুতে মুজিব উরকেও খেলা ছিল কঠিন। এশিয়া কাপে বাংলাদেশের গ্রুপে (‘বি’ গ্রুপ) আছে শ্রীলংকার-আফগানিস্তান। লেগ স্পিন নিয়ে আলাদা প্রস্তুতির ব্যাপারে লিটন বলেন, ‘ওয়ানডে ফরম্যাটে রশিদকে লম্বা সময় নিয়ে খেলার সুযোগ থাকবে। চাপ তাই কিছুটা কম। সে অনেক ভালো একজন বোলার। তবে এশিয়া কাপের ফরম্যাটটা ভিন্ন। টি২০-তে দ্রুত রান তোলার তাগাদা ছিল, কিন্তু ওয়ানডেতে লম্বা সময় পাওয়া যাবে।

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

bodybanner 00