মানুষের কামড়ে বিষধর সাপ শেষ!

মানুষের কামড়ে বিষধর সাপ শেষ!
bodybanner 00

সাপের ছোবলে মানুষ মরে। এর উল্টোটা কখনও ঘটতে দেখা যায় না। তবে ভারতের উত্তর প্রদেশ রাজ্যের বাসিন্দা এর উল্টোটাই করে দেখিয়েছেন বটে কিন্তু এতে তার খোয়াতে হয়েছে জীবন।
মানুষের কামড়ে বিষধর সাপ শেষ!রোজকার মত মাঠে পশু চড়াতে গিয়েছিলেন রাজ্যের হারদোই জেলার বাসিন্দা সোনেলাল। হঠাৎ এক বিষধর সাপ তাকে পেয়ে বসে। সাপ তাকে ছোবল মারার আগেই সে সাপের মাথায় কামড় বসিয়ে দেন। এতে সাপের মাথা দেহ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে সোনেলালের মুখে চলে যায়। এর কিছুক্ষণ পর সোনেলাল মাঠে জ্ঞান হারিয়ে ঢলে পড়েন। জ্ঞান হারাবার আগে সোনেলাল গ্রামবাসীকে বলে যান সাপ তার পায়ে পেঁচিয়ে ধরে ছোবল মেরেছিল। তার প্রতিশোধ নিতে গিয়ে তিনি সাপকে কামড়ে দিয়েছেন। গ্রামবাসী সোনেলালকে অজ্ঞান অবস্থায় স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

চিকিৎসকরা সোনেলালের দেহে সাপের কামড়ের কোনো চিহৃ পাননি। গ্রামের এক ফার্মাসিস্ট হিতেশ কুমার বলেন, সোনেলালের প্রতিবেশী রাম সেবক ও রাম সরুপের কথামত আমি সোনেলালকে দেখতে যাই। সোনেলালকে সাপ কামড়ে দিয়েছে এ কথা তাদের কাছে শুনি। আমরা সোনেলালের দেহে সাপের কামড়ের কোনো দাগ দেখতে পারিনি। হাসপাতালে সোনেলালকে মহেন্দ্র ভার্মা নামে এক চিকিৎসক দেখেছিলেন। তিনি বলেন, সোনেলাল সাপের বিষের প্রভাবে জ্ঞান হারিয়েছিলেন। পরে ওই বিষ তার দেহে থেকে যাওয়ার কারণে তার মৃত্যু হয়। কারণ সোনেলাল সাপের বিষ থাকার অংশটা গিলে ফেলেছিলেন। এ ঘটনা জানাজানি হওয়ার পর স্থানীয় লোকরা কৃষক সোনেলালকে একজন মাদকাসক্ত বলে দাবি করেন।
সূত্র : দ্যা এক্সপ্রেস ট্রিবিউন

Facebook Comments

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

bodybanner 00