মন্টেনিগ্রোর মার্কিন দূতাবাসে বিস্ফোরণ, হামলাকারী আত্মঘাতী

মন্টেনিগ্রোর মার্কিন দূতাবাসে বিস্ফোরণ, হামলাকারী আত্মঘাতী
bodybanner 00

মন্টেনিগ্রোর যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসে গ্রেনেড বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে এক অজ্ঞাত দুর্বৃত্ত। হামলার পর গ্রেনেডধারী নিজে আত্মঘাতী হন। স্থানীয় সময় বুধবার মধ্যরাতে এই হামলা হয়। বৃহস্পতিবার দেশটির সরকার হামলার কথা গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করে।
মন্টেনিগ্রোর মার্কিন দূতাবাসে বিস্ফোরণ, হামলাকারী আত্মঘাতীসূত্র মতে, মন্টেনিগ্রোর রাজধানী পোডগরিকায় গ্রেনেড নিয়ে হামলা চালায় অজ্ঞাত এক দুর্বৃত্ত। হামলার পর সে নিজেকে বিস্ফোরণে উড়িয়ে দেয়। এ ঘটনায় যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের কোনো কর্মচারী নিহত কিংবা আহত হয়নি। সবাই নিরাপদে আছেন বলে জানিয়েছে দূতাবাস সূত্র। এদিকে হামলাকারীর পরিচয় নিশ্চিত করতে পারেনি মন্টেনিগ্রো পুলিশ। তবে এই হামলার পেছনে সার্বিয়ায় জন্ম নেয়া এক ব্যক্তিকে সন্দেহ করছে তারা। হামলার পর দূতাবাসের নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। কি উদ্দেশে এই হামলা করেছে সেটাও নিশ্চিত করতে পারেনি পুলিশ। প্রসঙ্গত, ১৯৯০ সালে বলকান যুদ্ধের পর দেশটির বহু মানুষের হাতে গ্রেনেড রয়ে গিয়েছিল। মাঝে মধ্যে এসব গ্রেনেড বিস্ফোরিত হয়। হামলার পরিস্থিতি শান্ত আছে।

৬ লাখ ৩০ হাজার লোকের বাস মন্টেনিগ্রো। ২০০৬ সালে দেশটি স্বাধীনতা পায়। যুগোস্লাভিয়া থেকে যেসব দেশ ভাগ হয়ে স্বাধীনতা পেয়েছে মন্টেনিগ্রো তার মধ্যে একটি। ন্যাটোতে যোগ দেয়া নিয়ে ২০১৬ সালে মন্টেনিগ্রো অশান্ত হয়ে পড়ে। দেশটির বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলো প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ আনেন। এরপর দেশের সাধারণ নির্বাচন নিয়ে দেশটিতে গণ বিক্ষোভ হয়।

Facebook Comments

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

bodybanner 00