‘বেগম জিয়ার প্রতি নিষ্ঠুর ও অমানবিক আচরণ করা হচ্ছে’

‘বেগম জিয়ার প্রতি নিষ্ঠুর ও অমানবিক আচরণ করা হচ্ছে’
bodybanner 00

খালেদা জিয়াকে মানসিকভাবে যন্ত্রণা দেয়ার জন্য পরিবারের সদস্যদেরকে ৭ দিন পরপর নয় এখন ১০ দিন পর দেখা করার নির্দেশ হতে যাচ্ছে বলে অভিযোগ করেছে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট রহুল কবির রিজভী। তিনি বলেন, সরকারের নির্দেশেই কারাকর্তৃপক্ষ বেগম জিয়ার প্রতি নিষ্ঠুর ও অমানবিক আচরণ করা হচ্ছে। অবস্থাদৃষ্টে মনে হচ্ছে সরকার দেশনেত্রীকে এক অবনতিশীল স্বাস্থ্যঝুঁকির মধ্যে ফেলে রাখার জন্যই কারাকর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দিয়েছে। বিষয়টি গভীর উদ্বেগের ও বন্দী নির্যাতনের শামিল।

সোমবার দুপুরে রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এই অভিযোগ করেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট রহুল কবির রিজভী। তিনি বলেন, আমরা আগেও বলেছি খালেদা জিয়া অসুস্থ কিন্তু নেত্রীর সুচিকিৎসা নিয়ে কারাকর্তৃপক্ষের টালবাহানা অত্যন্ত রহস্যজনক। সরকারি মেডিকেল বোর্ড এর চিকিৎসকরাও অর্থপেডিক বেড দেয়ার সুপারিশ করলেও এখনও তাঁকে সেই বেড দেয়া হয়নি। জরুরি ভিত্তিতে তাঁর এমআরআইসহ উন্নত চিকিৎসার দরকার। কিন্তু বারবার বলার পরেও কারাকর্তৃপক্ষ বিষয়টিকে উপেক্ষা করছে। ক্ষমতাসীনদের দাপটে কারাকর্তৃপক্ষ তাদের মুঠোবন্দী। ফ্যাসিবাদের রোগ-লক্ষণ কারাকর্তৃপক্ষের মধ্যে তীব্র আকার ধারণ করেছে।

রিজভী আরো বলেন, একজন জাতীয় নেতার ওপর নির্দয় আচরণ শুধুমাত্র প্রতিহিংসা চরিতার্থ করা ছাড়া অন্য কোনো কারণ নেই। এর পেছনে কোন সুগভীর চক্রান্ত রয়েছে বলেই জনগণ বিশ্বাস করে। কোটি কোটি জনগণের পাশাপাশি বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল-বিএনপি’র পক্ষ থেকে আমি বিএনপি চেয়ারপারসন ও ‘মাদার অব ডেমোক্রেসি’ দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার গুরুতর অসুস্থতার খবরে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করছি এবং অবিলম্বে তাঁর পছন্দ অনুযায়ী ইউনাইটেড হাসপাতালে ব্যক্তিগত চিকিৎসকদের তত্ত্বাবধানে সুচিকিৎসা নিশ্চিতের জোর দাবি জানাচ্ছি।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের বক্তব্যেও সমালোচনা করে বিএনপির এই নেতা বলেন, আমি ওবায়দুল কাদের সাহেবের উদ্দেশ্যে বলতে চাই-কোটা সংস্কার আন্দোলন নিয়ে পরাজিত হওয়ায় এখন আপনারা বেসামাল হয়ে পড়েছেন। দিশেহারা হয়ে প্রতিদিন আপনারা বকবক করছেন বেশরমের মতো। বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান জনাব তারেক রহমান এ দেশের মাটি ও মানুষের নেতা। তিনি সবসময় এ দেশ এবং দেশের মানুষকে নিয়ে চিন্তা করেন।

তিনি বলেন, ভিসি’র বাসায় নাশকতার অজুহাত তুলে আন্দোলনের লক্ষ্যকে দিকভ্রান্ত করার ষড়যন্ত্রে মেতে আছে। সরকার এবং সরকারের পেটোয়ারাই যে ভিসি’র বাড়িতে আক্রমণের মূল নায়ক সেটি তারা প্রমান করে দিলেন ছাত্রলীগ নেত্রী রগকাটা এশার বহিস্কারাদেশ প্রত্যাহারের মধ্য দিয়ে।

রিজভী আরো বলেন, শিক্ষার্থীরা কোটা সংস্কার চেয়েছিল, বাতিল নয়, কিন্তু প্রধানমন্ত্রী জেদের বশে কোটা বাতিলের ঘোষণা দিয়ে দিলেন। বিষয়টি যে শুভঙ্করের ফাঁকি এবং সাম্প্রতিককালের সেরা প্রহসন সেটি আমরা আগেই বলেছিলাম। এটি নিয়ে শিক্ষার্থীসহ গোটা জাতি এখনো অন্ধকারে। এখনও প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়নি। আবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, জাহাঙ্গীর নগর বিশ্ববিদ্যালয়সহ বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের ওপর ছাত্রলীগের হামলা এখনো চলছে, এখনো ছাত্রলীগ আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছে শিক্ষার্থীরা।

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

bodybanner 00