বিএনপির আচরণ পাগলা কুকুরের মতো : হাছান মাহমুদ

বিএনপির আচরণ পাগলা কুকুরের মতো : হাছান মাহমুদ
bodybanner 00
বিএনপির আচরণ পাগলা কুকুরের মতো হয়ে গেছে বলে মন্তব্য করে বাংলাদেশ অাওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক এবং দলের অন্যতম মুখপাত্র ড. হাছান মাহমুদ এমপি বলেছেন, গত সাড়ে ৯ বছর ধরে তারা (বিএনপি) বিভিন্ন সময় অান্দোলন গড়ে তোলার চেষ্টা করেছে। ২০১৩, ১৪, ১৫ সালে অগ্নি সন্ত্রাস চালিয়ে হজার হাজার মানুষকে আগুনে পুড়িয়ে সরকার উৎখাতের চেষ্টা করে দেশে বিশেষ পরিস্থিতি তৈরি করেও ব্যর্থ হয়েছে, এরপর তারা (বিএনপি) অন্যের ঘাড়ে চেপে সরকারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করেছে কখনো তেল-গ্যাস কমিটির আশ্রয় নিয়েছে, কখনো কোটা আন্দোলনে আশ্রয় নিয়েছে, সর্বশেষ শিশু-কিশোরদের ঘাড়ে চড়ার চেষ্টা করেছে।সুতরাং সব কিছুতে ব্যার্থ হয়ে তারা (বিএনপি) এখন পাগলা কুকুরের মতো আচরণ করছে। আপনারা জানেন, পাগলা কুকুরের কামড়ে জলাতঙ্ক রোগ ছড়ায়। এখন জনগণও এই আতঙ্কে আছে বিএনপি কামড় দিয়ে আতঙ্ক ছড়াতে পারে।
আজ শনিবার ধানমন্ডিস্থ আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ের নতুন ভবনে প্রচার ও প্রকাশনা উপ-কমিটির নিয়মিত বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।
তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শিক্ষার্থীদের সমস্ত দাবি মেনে নিয়ে তাদের ঘরে ফিরে যাওয়ার আহ্বান জানিয়েছিলেন কিন্তু আমরা দেখতে পেলাম শিশু-কিশোরদের ঘাড়ের ওপর বন্ধুক রেখে বিএনপি জামায়াত এবং ১/১১কুশীলবরা দেশের পরিস্থিতি ঘোলাটে করার লক্ষে নোংরা রাজনৈতিক খেলায় নেমেছিল। তারা স্কুলের ড্রেস পড়িয়ে ছাত্রদলের, শিবিরের ক্যাডারদের (গুন্ডাদের) এবং ছাত্রী সংস্থার মেয়েদের মাঠে নামিয়েছিল। বিএনপি নেতা অামীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, মাহমুদুর রহমান মান্না, ফজলুল হক মিলন, ছাত্রদলের কয়েকজন নেতার কথোপকথন ইতোমধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে এবং তা এখন দেশের সবার জানা হয়ে গেছে কিভাবে এই আন্দোলনকে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে ব্যাবহার করার অপচেষ্টা করা হয়েছিল। অর্থাৎ এই আন্দোলনকে নিয়ে একটি গুজব ছড়ানো হয়েছিল,  আওয়ামী লীগ অফিস অাক্রান্ত হয়েছিল।
সাবেক বন ও পরিবেশ মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেন, শিক্ষার্থীদের এই আন্দোলনে আওয়ামী লীগ অফিসকে ঘিরে যে গুজব গুলো ছড়ানো হয়েছিল এবং যেদিন গুজব ছড়ানো হয় সেই দিনই আওয়ামী লীগ অফিসে শিক্ষার্থীরা ঘুরে গিয়ে সংবাদ সম্মেলন করে বলেছে এগুলো গুজব তাদেরকে বিভ্রান্ত করা হচ্ছে। এই আন্দোলনে আমাদের এক কর্মির চোখ উপড়ে ফেলা হয়েছে সেটিও তারা ছাত্রের চোখ উপড়ে ফেলা হয়েছে বলে অপ-প্রচার চালিয়েছে।অর্থাৎ এ গুজব সন্ত্রাস চালানো হয়েছে দেশের বিরুদ্ধে, সরকারের বিরুদ্ধে। এই গুজব সন্ত্রাস ও অপপ্রচার তারা বিদেশেও চড়িয়েছে।
ভবিষ্যতে অার কেউ যাতে গুজব সন্ত্রাস এবং অপ-প্রচার চালিয়ে রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করতে না পারে এবং কিভাবে এ গুজব চড়ানো হয়েছিল সেগুলো জনগণের সামনে তুলে ধরার জন্য আগামী ১৮ অাগস্ট একটি ভিডিও তথ্য চিত্র প্রচার ও প্রকাশনা উপকমিটি কর্তৃক প্রকাশ করা হবে।
এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, উপপ্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিনসহ প্রচার ও প্রকাশনা উপকমিটির সব নেতৃবৃন্দ।

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

bodybanner 00