ব্রেকিং নিউজঃ

বাবা ব্রাজিলের বিশ্বকাপ জয়ী, ছেলে চান স্পেনের বিশ্বকাপ

বাবা ব্রাজিলের বিশ্বকাপ জয়ী, ছেলে চান স্পেনের বিশ্বকাপ
bodybanner 00

ছেলে যদি বিশ্বকাপ ট্রফি উচিয়ে ধরেন তাহলে বাবার কাছে দেখতে কেমন লাগবে? অবশ্যই ভালো! কিন্তু সেই বাবা যদি হন ব্রাজিলের হয়ে বিশ্বকাপ জয়ী। আর ছেলে জেতেন স্পেনের হয়ে বিশ্বকাপ তাহলে বাবার কাছে কেমন লাগবে। বলছি ব্রাজিলের হয়ে ১৯৯৪ সালে বিশ্বকাপ জেতা মাজিনহো এবং স্পেনের হয়ে খেলা মিডফিল্ডার থিয়াগো আলকানতারার কথা। এমনকি আলকানতারার আরেক ভাই রাফিনহা খেলেন ব্রাজিলের হয়ে। যদিও ইনজুরিরর কারণে এখন আলোর বাইরে তিনি।

বায়ার্ন মিউনিখের হয়ে খেলা স্পেনের এই মিডফিল্ডার আলকানতারা ফিফাডটকমকে রাশিয়া বিশ্বকাপ নিয়ে একটি সাক্ষাৎকার দিয়েছেন। কথা বলেছেন বাবার বিশ্বকাপ জেতার স্মৃতি নিয়ে। তার কিছু অংশ তুলে ধরা হলো:

প্রশ্ন: বিশ্বকাপ প্রায় এসেই গেলো। সব ঠিকঠাক থাকলে স্পেনের হয়ে এবার আপনি খেলছেন। ব্যক্তিগতভাবে আপনার অনুভূতি কী?

আলকানতারা: এটা বিশ্বকাপ! বিশ্বকাপ খেলা প্রত্যেক ফুটবলারের স্বপ্ন। আমরা দল হিসেবে ভালো খেলছি। আমাদের খেলার ধরণটা ঝালিয়ে নিতে পেরেছি এবং জয় পেয়েছি। আমরা বড় কিছুর স্বপ্ন দেখছি।

প্রশ্ন: কোচ লোপেটিগুই এর অধীনে আপনি, ডি গিয়া, কোকে, মোরাতা, ইসকো ২০১৩ সালের অনূর্ধ্ব-২১ উয়েফার ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপ খেলেছেন। একসঙ্গে বিশ্বকাপ খেলটা কিভাবে দেখছেন?

আলকানতারা: আমরা সবাই খুব প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ। আর সেজন্য সবাই এখানে আসরে পেরেছি। বিশ্বকাপেও আমরা সবাই একসঙ্গে অনেক দূর যাবো বলে আমার আশা। আমরা সর্বোচ্চ পর্যায়ের ফুটবলে অনেক বছর ধরে খেলছি। আর সেজন্য সবাই প্রতিযোগিতাপূর্ণ।

প্রশ্ন: স্পেন কোচ লোপেটিগুই’র অধীনে অনেক দিন খেলছেন আপনার। কোচ হিসেবে তিনি কতটা উন্নতি করেছেন?

আলকানতারা: আমরা সবাই উন্নতি করেছি। কারণ আমরা শিখতে চেয়েছে এবং আগের থেকে ভালো ফুটবল খেলতে চেয়েছে। আর কোচ প্রতি মুহূর্তে উন্নতি করেছেন। এটা সহজে বুঝতে হলে আপনাকে তার খেলা সাজানোর ধরণ এবং কৌশল বিশ্লেষণ করতে হবে।

প্রশ্ন: কোচ হিসেবে কী তিনি তার আচরণে কোন পরিবর্তন এনেছেন?

আলকানতারা: আমরা যারা ফুটবলারর তাদের অনেক ইগো আছে। তিনি কোচ হওয়ার আগে একজন ফুটবলার ছিলেন। তিনি জানেন কিভাবে ফুটবলারদের সঙ্গে আচরণ করতে হয়ে। তাদের কিভাবে সামলাতে হয়।

প্রশ্ন: আপনার প্রথম বিশ্বকাপের স্মৃতি কোনটা?

আলকানতারা: ১৯৯৪। ব্রাজিল চ্যাম্পিয়ন। আমার বাবা সেবার বিশ্বকাপ জিতে ছিলেন। আমার বয়স তখন মাত্র তিন বছর ছিল। বিশ্বকাপ ম্যাচের কথা আমার মনে নেই। তবে বাবা যখন বাড়ি ফিরে এলেন তখনকার স্মৃতি বেশ মনে আছে। সবাই খুব আমোদ করেছিলেন, উদ্‌যাপন করেছিলেন।

প্রশ্ন: কোন বিশ্বকাপকে আপনি সবার উপরে রাখবেন?

আলকানতরা: ২০১০ সালের স্পেনের বিশ্বকাপ জয়ের স্মৃতি। আমরা তখন অনূর্ধ্ব-১৯ দলে ছিলাম।

প্রশ্ন: ইনজুরির কারণে আপনার ভাই রাফিনহা ব্রাজিলের দল থেকে ছিটকে গেছেন। আপনি কি মনে করেন তার ব্রাজিলের সঙ্গে রাশিয়া যাবার সুযোগ হবে?

আলকানতারা: অবশ্যই। তার সব সময়ই সুযোগ আছে। তবে আপনাকে বাস্তববাদী হতে হবে। ইনজুরির উপরে হাত নেই। এটা মেনে নিতে হবে।

প্রশ্ন: দুই ভাই ব্রাজিল এবং স্পেনের হয়ে ফুটবলের বিশ্বকাপ খেলছেন। এমন কিছু ভাবেন?

আলকানতারা: আমি জানি না। তবে আমার বাবা হলে হয়তো এমটা হতো। অবশ্যই আমরা দুই ভাই চাই এমনটা ঘটুক। আমি শুধু এইটুকু কল্পনা করতে পারি। ফাইনালের সময় আমরা দু’জনই রাশিয়া থাকবো।

Facebook Comments

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

bodybanner 00