বাধা-বিপত্তিহীন শান্তিপূর্ণ ভোট: বিদেশিদের পর্যবেক্ষণ

বাধা-বিপত্তিহীন শান্তিপূর্ণ ভোট: বিদেশিদের পর্যবেক্ষণ
bodybanner 00

শান্তিপূর্ণ পরিবেশে কোনো ধরনের বাধা-বিপত্তি ছাড়াই ভোটাররা ভোট দিয়েছেন। নির্বাচনী পরিবেশ ছিল যথেষ্ট সন্তোষজনক। সেখানে যথেষ্ট নিরাপত্তা ছিল। তবে ঢাকার বাইরে শুনেছি কিছু জায়গায় সংঘাত হয়েছে। তবে আমরা যেখানে গিয়েছি, সেখানে কোনো সংঘাত হয়নি।

সোমবার (৩১ ডিসেম্বর) জাতীয় প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে বিদেশি পর্যবেক্ষক প্রতিনিধিদল এ তথ্য জানায়।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন পরবর্তী এ সংবাদ সম্মেলন যৌথভাবে আয়োজন করে ইলেকশন মনিটরিং ফোরাম ও সার্ক মানবাধিকার ফাউন্ডেশন।

সংবাদ সম্মেলনে বিদেশি পর্যবেক্ষকদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন কানাডার লেবার মার্কেট প্ল্যানিংয়ের সিনিয়র অ্যানালাইসিস তানিয়া দেওয়ান ফস্টার, মানবাধিকার কর্মী চ্যালি দেওয়ান ফস্টার, নেপাল কমিউনিস্ট পার্টির কেন্দ্রীয় সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী হাকিমুল্লাহ মুসলিম, নেপাল কমিউনিস্ট পার্টির কেন্দ্রীয় সদস্য ও সাবেক সংসদ সদস্য নাজির মিয়া, নেপালের সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট মোহাম্মাদীন আলী, কলকাতা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি সাংবাদিক কমল ভট্টাচার্য, কলকাতা জজকোর্টের আইনজীবী ড. গৌতম ঘোষ, শ্রীলঙ্কার সার্ক মানবাধিকার ফাউন্ডেশনের বিশেষ প্রতিনিধি এহসান ইকবাল।

সংবাদ সম্মেলনে সূচনা বক্তব্য রাখেন ইলেকশন মনিটরিং ফোরামের নির্বাহী পরিচালক ও সার্ক মানবাধিকার ফাউন্ডেশনের মহাসচিব অধ্যাপক মোহাম্মদ আবেদ আলী।

সংবাদ সম্মেলনে কানাডার লেবার মার্কেট প্ল্যানিংয়ের সিনিয়র  অ্যানালাইসিস তানিয়া দেওয়ান ফস্টার বলেন, নির্বাচনের পরিবেশ ছিল শান্তিপূর্ণ। সেখানে যথেষ্ট নিরাপত্তা ছিল। তবে ঢাকার বাইরে শুনেছি কিছু জায়গায় সংঘাত হয়েছে। তবে আমরা যেখানে গিয়েছি, সেখানে কোনো সংঘাত হয়নি। তাই ঢাকার বাইরের বিষয় নিয়ে আমি কোনো কথা বলতে চাই না। কেননা যেটা দেখিনি, সেটা বলাটা সমীচীন নয়।

কলকাতা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি সাংবাদিক কমল ভট্টাচার্য বলেন, নির্বাচনী পরিবেশ ছিল শান্তিপূর্ণ। মানুষকে দেখেছি লাইনে দাঁড়িয়ে ভোট দিচ্ছেন। ভোটারদের জিজ্ঞাসা করেছি, তারা কোনো ভয়-ভীতির মধ্যে রয়েছে কিনা। তাদের কোনো হুমকি দেওয়া হয়েছে কিনা। তবে সবাই বলেছে, তারা কোনো ভয়-ভীতির মধ্যে নেই। কেউ তাদের হুমকিও দেয়নি। সবাই উৎসবমুখর পরিবেশের মধ্য দিয়ে ভোট দিয়েছেন।

নিরাপত্তার জন্য প্রশাসনও যথেষ্ট ভূমিকা পালন করেছে বলে জানান তিনি।

নেপালের সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী  অ্যাডভোকেট মোহাম্মাদীন আলী বলেন, ঢাকা শহরের গুলশান, মিরপুর এলাকায় আমরা ঘুরেছি। সেখানকার নির্বাচনী পরিবেশ দেখে আমরা সন্তুষ্ট। ভোটারদের মধ্যেও স্বতঃস্ফূর্ততা আমরা লক্ষ্য করেছি।

শ্রীলঙ্কার সার্ক মানবাধিকার ফাউন্ডেশনের বিশেষ প্রতিনিধি এহসান ইকবাল বলেন, আমরা ৯টি ভোটকেন্দ্র ঘুরেছি। সবগুলো ভোটকেন্দ্রের পরিবেশ ছিল শান্তিপূর্ণ। নির্বাচন কমিশনের ভূমিকাও ছিলোইতিবাচক ও সুশৃঙ্খল।

সংবাদ সম্মেলেনে আরো উপস্থিত ছিলেন সার্ক মানবাধিকার ফাউন্ডেশনের কেন্দ্রীয় পরিচালক ড. মাসুম চৌধুরী।

Facebook Comments

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

bodybanner 00