প্রেগনেন্সিতে কি আনারস নিরাপদ?

প্রেগনেন্সিতে কি আনারস নিরাপদ?
bodybanner 00

আমাদের দেশে প্রেগন্যান্সি(গর্ভাবস্থা) সম্পর্কে যতগুলো কথা প্রচলিত আছে তার মধ্যে অন্যতম হলো গর্ভবতী মা নাকি আনারস খেতে পারবেন না কারণ এতে এবোরশন হবার ঝুঁকি বেড়ে যায়।

যুক্তরাজ্য ভিত্তিক মা ও শিশু বিষয়ক সংস্থা ইউকে বেবি সেন্টারের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, গর্ভাবস্থায় আনারস খাওয়া সম্পূর্ণ নিরাপদ। এতে করে এবোরশনের কোনো প্রমান বিজ্ঞানীদের হাতে এই মুহুর্তে নেই।

অন্যান্য অনেক ফলের মতো এটি অত্যন্ত স্বাস্থ্যকর এবং অনেক বেশি ফাইবার থাকায় গর্ভাবস্থার কোষ্ঠ কাঠিন্য দূর করে।

আনারসে ব্রোমিলিন নামের এক ধরনের উপাদান রয়েছে যা পূর্বে এবোরশনের জন্য ব্যবহার করা হতো কিন্তু একটি আনারসে এর পরিমাণ অনেক অনেক কম। ১০ টি আনারস যদি কেউ একবারে খায় তাতে যে পরিমাণ ব্রোমিলিন গ্রহণ করবেন, তাতে এবোরশনের ঝুঁকি মাত্র ৩০ শতাংশ। এখন বলুন ৩/৪ টুকরোর বেশি আনারস কেউ খেতে পারে।
মজার বিষয় হলো আনারস ছাড়াও কমলা, আমড়া এবং টক জাতীয় ফলে ব্রোমিলিনের উপস্থিতি আনারসের চেয়ে বেশি।

গর্ভাবস্থায় আপেল, কমলা, আম, আনারস ও তরমুজ স্বাস্থ্যের জন্য উপকারি। এমনিভাবে পাকা পেঁপে খেতেও কোনো সমস্যা নাই, তবে কাঁচা পেঁপে ও আধাপাকা পেঁপে ল্যাটেক্স প্রোডাক্ট থাকায় গর্ভপাতের ঝুঁকি থাকে।

হ্যাপি প্রেগন্যান্সি…

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

bodybanner 00