পাহাড়ে বেইলি ব্রিজ ভেঙ্গে নতুন করে কংক্রিটের সেতু নির্মাণের উদ্যোগ, পাল্টে যাবে যোগাযোগ ব্যবস্থা

পাহাড়ে বেইলি ব্রিজ ভেঙ্গে নতুন করে কংক্রিটের সেতু নির্মাণের উদ্যোগ, পাল্টে যাবে যোগাযোগ ব্যবস্থা
bodybanner 00

মো: ইরফান উল হক, রাঙ্গামাটি প্রতিনিধি:-
পার্বত্য চট্টগ্রামে যোগাযোগ ব্যবস্থার আমুল পরিবর্তন হতে যাচ্ছে, সরকার পাহাড়ে যে সমস্ত জায়গায় বেইলী ব্রিজ রয়েছে সেগুলো ভেঙ্গে কংক্রিটের সেতু নির্মাণের উদ্যেগ নিয়েছে। এতে করে প্রত্যন্ত অঞ্চলে যাতায়াত ব্যবস্থা সহজতর বিশেষ করে যাত্রী ও পন্য পরিবহন দ্রুত সময়ের মধ্যে করা সম্ভব হবে। তিন পার্বত্য জেলায় দুই শতাধিক বেইলি ব্রিজেরস্থলে পিসি গার্ডার ও আরসিসি গার্ডার সেতু নির্মাণ করা হবে এজন্য ব্যয় ধরা হয়েছে হাজার কোটি। সড়ক ও জনপথ বিভাগ জানিয়েছে সরকারের উন্নয়ন কর্মসুচীর আওতায় রাঙামাটিতে ২২টি কংক্রিটের ব্রীজ নিমার্ণ হবে এর জন্য বরাদ্দ ধরা হয়েছে ১৬০ কোটি এবং খাগড়াছড়িতে ৬৬টি কংক্রিট ব্রিজের বরাদ্ধ রাখা হয়েছে ২১৮ কোটি।
পাহাড়ে বেইলি ব্রিজ ভেঙ্গে নতুন করে কংক্রিটের সেতু নির্মাণের উদ্যোগ, পাল্টে যাবে যোগাযোগ ব্যবস্থাতবে সবচেয়ে বেশী বেইলি ব্রিজ হচ্ছে বান্দরবানে, সেখানে শতাধিক বেইলি ব্রিজ রয়েছে এখনো পর্যন্ত বান্দরবান কংক্রিট ব্রিজ নির্মাণের আওতায় আসেনি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে জানিয়েছেন সংশিষ্ট কর্মকর্তা। সাম্প্রতিক সময়ে পার্বত্য এলাকার বিভিন্ন স্থানে ভারি যানবাহন চলাচল করার সময় বেইলী ব্রিজ ভেঙ্গে যান চলাচল ব্যাহত ও অধিকাংশ বেইলি ব্রিজ ঝুকিপুর্ণ হয়ে উঠায় সরকার পাহাড়ের সব বেইলি ব্রিজের জায়গায় কংক্রিট ব্রিজ নির্মাণের উদ্যেগ নিয়েছে। এসব কংক্রিট ব্রিজের সাথে চাহিদা অনুযায়ী পিসি গার্ডার সেতু ও আরসিসি গার্ডার সেতু নির্মাণ করা হবে। সড়কে চলাচলকারী যানবাহনের চালকরা বেইলি ব্রিজ ভেঙ্গে কংক্রিট সেতু নির্মাণ দাবির পাশাপাশি কংক্রিট সেতুতে অত্যন্ত ২টা গাড়ী চলাচলের ব্যবস্থা রাখার দাবি জানান। রাঙামাটি সওজের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. এমদাদ হোসেন জানান, বেইলি ব্রিজ যেকোনো অঞ্চলের যোগাযোগ স্থাপনের অস্থায়ী মাধ্যম। পার্বত্যাঞ্চলের অধিকাংশই বেইলি ব্রিজ। বিভিন্ন সময়ে পাহাড় ধস কিংবা সেতুর নিচের অংশের মাটি সরে গিয়ে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়ার ঘটনা ঘটছে। পার্বত্য এলাকার যোগাযোগ ব্যবস্থার টেকসই উন্নয়নে সব বেইলি সেতু ভেঙ্গে আরসিসি সেতু নির্মাণে উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। চলমান ও বাস্তবায়নাধীন প্রকল্পগুলোর কাজ শেষ হলে পার্বত্য এলাকার যোগাযোগ ব্যবস্থা আমূল পরিবর্তন হবে।রাঙামাটি সড়ক ও জনপথ বিভাগের উপ বিভাগীয় প্রকৌশলী মাকসুদুর রহমান জানান, রাঙামাটিতে ৭টি রাস্তায় ২২টি কংক্রিটের ব্রিজ করা হবে, বেইলি ব্রিজ যেগুলো প্রতিস্থাপন করা হচ্ছে সেগুলো অনেক পুরানো এবং ঝুকিপুর্ণ।

খাগড়াছড়ির সওজের নির্বাহী প্রকৌশলী মোসলেহ উদ্দিন চৌধুরী জানান, পার্বত্য এলাকার সেতুগুলো বিভিন্ন ছড়া, খাল বা ছোট নদীর ওপর নির্মিত। দীর্ঘদিনের পুরনো এসব সেতু দিয়ে ভারী যানবাহন চলাচল ঝুঁকিপূর্ণ। শুরুতে ঝুঁকিপূর্ণ সেতুগুলো ভেঙ্গে আরসিসি সেতু নির্মাণের পরিকল্পনা ছিল সওজের। তবে কয়েক বছর ধরে বেশকিছু ঘটনায় পার্বত্য এলাকার সঙ্গে সারা দেশের যোগাযোগ ব্যবস্থা বিঘিœত হওয়ার কারনে সব বেইলি ব্রিজ অপসারণ করে কংক্রিট সেতু নির্মাণের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। খাগড়াছড়ির ৫৬টি সেতুর নির্মাণকাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে। নতুন একটি প্রকল্পের মাধ্যমে বাকি সেতুগুলোও আরসিসি সেতুতে রূপান্তরের প্রক্রিয়া চলছে। পার্বত্য এলাকার আকা বাঁকা পাহাড়ী পথে বেইলি ব্রিজের স্থলে কংক্রিট সেতুর পাশাপাশি সড়কগুলোকে প্রশ্রস্থ করার দাবি এলাকাবাসির।

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

bodybanner 00