নিরাপদ নয় স্যামসাংয়ের এস৯!

নিরাপদ নয় স্যামসাংয়ের এস৯!
bodybanner 00

গ্যালাক্সি এস৯-এর ইন্টেলিজেন্ট স্ক্যানকে সহজে বোকা বানানো যায় বলে দাবি করছেন বিশেষজ্ঞরা। ছবি: সংগৃহীত।

  • ইন্টেলিজেন্ট স্ক্যান ফেস রিকগনিশন ও আইরিশ স্ক্যানিং উভয়ই ব্যবহার করে।
  • অতীতে ফেস রিকগনিশন ও আইরিশ স্ক্যানিংকে সহজেই পাশ কাটানো সম্ভব হয়েছে।
  • গবেষকেরা বলছেন, স্যামসাংয়ের এ পদ্ধতিকে সহজেই বোকা বানানো যায়।
  • স্মার্টফোনের দাম ১ লাখ ৫ হাজার ৯৯০ টাকা।

 

গ্যালাক্সি এস৯ নামে নতুন স্মার্টফোন এনেছে স্যামসাং। স্যামসাং দাবি করছে, এতে সবচেয়ে উন্নত ক্যামেরার পাশাপাশি বেশ কিছু নতুন ফিচার এসেছে। তবে ফোনটির নিরাপত্তা ফিচার নিয়ে বিশেষজ্ঞরা প্রশ্ন তুলতে শুরু করেছেন। স্যামসাং গ্যালাক্সি এস৯-এ ইন্টেলিজেন্ট স্ক্যান নামের যে প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়েছে, তা খুব বেশি নিরাপদ নয় বলেই দাবি করছেন যুক্তরাষ্ট্রের কয়েকজন নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞ।

নতুন স্মার্টফোনে ফেস আনলক পদ্ধতি হিসেবে নতুন পদ্ধতি ইন্টেলিজেন্ট স্ক্যান এনেছে স্যামসাং। এটি ফেস রিকগনিশন ও আইরিশ স্ক্যানিং ব্যবহার করে। যদি ফেস রিকগনিশন কাজ না করে, তখন আইরিশ কাজ করে। যদি দুটিতেই কাজ না হয়, তখন উভয় পদ্ধতি ব্যবহার করে স্মার্টফোন খোলা যায়। কিন্তু গবেষকেরা দাবি করছেন, আগের কোনো স্মার্টফোনে ব্যবহৃত নিরাপত্তা পদ্ধতির চেয়ে ইন্টেলিজেন্ট স্ক্যান সিস্টেম দ্রুত কাজ করলেও এটি খুব বেশি নিরাপদ নয়।

প্রযুক্তিবিষয়ক ওয়েবসাইট সিনেট এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, স্যামসাং এখনো টুডি ফেস স্ক্যানিং পদ্ধতি ব্যবহার করছে। এ পদ্ধতিটি গত বছর গ্যালাক্সি এস৮-এর ক্ষেত্রেও ব্যবহার করেছিল। এ ছাড়া গ্যালাক্সি নোট ৭-এ ব্যবহৃত আইরিশ স্ক্যানিং প্রযুক্তি এস৯-এ ব্যবহার করা হয়েছে। এই দুটি প্রযুক্তি মিলিয়ে ইন্টেলিজেন্ট স্ক্যান প্রযুক্তি দ্রুতগতির বা উন্নত হয়েছে কিন্তু খুব বেশি নিরাপদ হয়নি। এটি এখনো নিখুঁত অর্থ লেনেদেনের মতো প্রযুক্তির ক্ষেত্রে নির্ভরযোগ্য নয়। এর আগে গ্যালাক্সি এস৮-এর ক্ষেত্রে মানুষের মুখের ছবি ব্যবহার করে এ প্রযুক্তিকে বোকা বানানো সম্ভব হয়েছিল। এ ছাড়া আইরিশ পদ্ধতিকেও বোকা বানানো সম্ভব হয়েছিল।

হ্যাকিং গ্রুপ কম্পিউটার ক্যাওস ক্লাবের নিরাপত্তা গবেষক জ্যান ক্রিসলারের বরাত দিয়ে ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, একটা পুরোনো সিস্টেমকেই নতুন করে আনা হয়েছে মাত্র। এর আগে গ্যালাক্সি এস৮ আইরিশ স্ক্যানিং প্রযুক্তি তাঁরা ভেঙে দেখিয়েছিলেন। নতুন সিস্টেম ভেঙে দেখানোর কোনো ইচ্ছা নেই তাঁদের।

প্রযুক্তি বিশ্লেষকেরা বলছেন, ইন্টেলিজেন্ট স্ক্যান ব্যবহার করে স্যামসাং পাস অ্যাপের সাহায্যে কোনো ওয়েবসাইটে ঢোকার সুবিধা আছে। এ থেকে বোঝা যায়, অ্যাপল তাদের আইফোন ১০-এ যে ফেস আইডি প্রযুক্তি এনেছে, তা ধরার চেষ্টা করছে স্যামসাং।

প্রযুক্তি বিশ্লেষক আভি গ্রিনগার্ট বলেছেন, এ ক্ষেত্রে অ্যাপলের পেছনে পড়ে গেছে স্যামসাং। অ্যাপল তাদের ফেস আইডির পেছনে প্রচুর অর্থ, সময় ও পরিশ্রম করেছে। স্যামসাংয়ের আগে থেকে ফেস আইডির একটি সংস্করণ থাকলেও তারা অ্যাপলকে ধরার চেষ্টা করে যাচ্ছে।

ব্যবসা ও প্রযুক্তিবিষয়ক ওয়েবসাইট বিজনেস ইনসাইডারের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, স্যামসাং গ্যালাক্সি এস৯ স্মার্টফোনটিতে কিছু হালনাগাদ আনলেও গত বছরের গ্যালাক্সি এস৮-এর তুলনায় উল্লেখযোগ্য কিছু নেই। এ ছাড়া এস৯-এর দাম অনেক বেশি। বাংলাদেশে গ্যালাক্সি এস৯-এর দাম ১ লাখ ৫ হাজার ৯৯০ টাকা। গত বছর গ্যালাক্সি এস৮ বাজারে আসার সময় দাম ছিল ৭৭ হাজার ৯০০ টাকা। এ ছাড়া গ্যালাক্সি এস৮-এর মতো এস৯ স্মার্টফোনটিতেও ৫ দশমিক ৮ ইঞ্চি মাপের অ্যামোলেড ডিসপ্লে এস৮ প্লাসের মতোই এস৯ প্লাসে ৬ দশমিক ২ ইঞ্চি মাপের অ্যামোলেড ডিসপ্লে ব্যবহৃত হয়েছে। দুটি ফোনের মধ্যে পার্থক্য খুঁজে পাওয়া কঠিন। এস৯ ওজনেও আগের চেয়ে ভারী হয়েছে। ব্যাটারির ক্ষেত্রেই পরিবর্তন আসেনি।

গত ২৫ ফেব্রুয়ারি স্পেনের বার্সেলোনায় মোবাইল ওয়ার্ল্ড কংগ্রেসের আগে গ্যালাক্সি এস৯ ও এস৯ প্লাস স্মার্টফোনের ঘোষণা দিয়েছে দক্ষিণ কোরিয়ার প্রতিষ্ঠান স্যামসাং। তথ্যসূত্র: এনডিটিভি, বিজনেস ইনসাইডার।

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

bodybanner 00