তিতলী’র কারণে যাত্রীবাহী নৌযান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা

তিতলী’র কারণে যাত্রীবাহী নৌযান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা
bodybanner 00

বরিশালসহ সারা দেশের যাত্রীবাহী নৌযান চলাচল পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত বন্ধ ঘোষণা করেছে অভ্যন্তরীণ নৌযান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ)। দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার কারণে সম্ভাব্য দুর্ঘটনার আশংকায় আজ বুধবার বিকেল সাড়ে ৩ টার দিকে এই নির্দেশ জারি করে বিআইিব্লিউটিএ। এর ফলে বরিশালের স্থানীয় রুটের পাশাপাশি ঢাকাসহ দূরপাল্লা রুটের সকল নৌযান চলাচল বন্ধ রয়েছে।

এদিকে আকস্মিক নৌ চলাচল বন্ধ হয়ে যাওয়ায় বিপাকে পড়েছেন স্থানীয়সহ দূরপাল্লা রুটের যাত্রীরা। আজ বিকেলে বরিশাল নদী বন্দরে গিয়ে কয়েক হাজার যাত্রীকে বিপদগ্রস্থ অবস্থায় দেখা গেছে। গন্তব্যে যেতে না পেরে অনেকে বাড়ি ফিরে গেছেন। অনেকে অবস্থান নিয়েছেন বিভিন্ন লঞ্চে এবং টার্মিনাল ভবনে।

বরিশাল আবহাওয়া অফিসের সিনিয়র অবজারভার মো. আনিচুর রহমান জানান, গভীর বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট লঘুচাপ প্রথমে নিম্নচাপে পরিণত হয়। পরে গভীর নিম্নচাপ থেকে ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নেয়, যার নামকরণ করা হয়েছে ‘তিতলী’। সবশেষ খবর অনুযায়ী তিতলী কক্সবাজার উপকূল থেকে ৮৭০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে, চট্টগ্রাম সমূদ্র বন্দর থেকে ৯১০ কিলোমিটার দক্ষিন-পশ্চিমে, মোংলা সমূদ্র বন্দর থেকে ৭৭৫ কিলোমিটার দক্ষিণ দক্ষিণ পশ্চিমে এবং পায়রা সমূদ্র বন্দর থেকে ৮৭০ কিলোমিটার দক্ষিণ দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থান করছিল। এটি বাংলাদেশের ওপর দিয়ে বয়ে অতিক্রমের সম্ভাবনা কম বলে জানিয়েছে বরিশাল আবহাওয়া অফিস।

তবে ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে বাংলাদেশের বিভিন্ন স্থানে ভারী এবং ঝড়োবৃষ্টি হতে পারে বলে আভাস দিয়েছেন আবহাওয়া অফিসের সিনিয়র অবজারভার আনিচুর রহমান। তিনি বলেন, ঘূর্ণিঝড় তিতলীর কারণে সমূদ্র বন্দরে ৩ নম্বর এবং অভ্যন্তরীণ নদী বন্দরে ২ নম্বর সতর্কতা সংকেত জারি করা হয়েছে।

Facebook Comments

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

bodybanner 00