ব্রেকিং নিউজঃ

ঢাবি উপাচার্যের বাসভবনে তাণ্ডব, গাড়িতে আগুন

ঢাবি উপাচার্যের বাসভবনে তাণ্ডব, গাড়িতে আগুন
bodybanner 00

চাকরিতে কোটা সংস্কারের দাবিতে শিক্ষার্থী ও চাকরিপ্রার্থীদের আন্দোলনের মধ্যেই রবিবার গভীর রাতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের বাসভবনে ব্যাপক ভাঙচুর চালানোর ঘটনা ঘটেছে। এ সময় উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আক্তারুজ্জামানের বাসভবনের গেট ভেঙে দুটি গাড়ি পুড়িয়ে দেয়া হয়। এছাড়া উপাচার্যের বাসভবনের ওপরের ও নিচতলায় ব্যাপক ভাঙচুর চালানো হয়। তবে এই ঘটনায় কেউ আহত হননি।

রবিবার দিবাগত রাত একটার পর থেকে এই তাণ্ডব চালানো হয়। তবে কে বা কারা এই হামলা চালিয়েছে বিষয়টি তেমন পরিষ্কার না হলেও একটি সূত্র জানিয়েছেন একটি গুজবকে কেন্দ্র করে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা এই হামলা চালিয়েছে।

ওই সূত্রটি জানায়, রাত আনুমানিক রাত সাড়ে বারটার দিকে আন্দোলনকারীদের মধ্যে একটি খবর ছড়িয়ে পড়ে যে আন্দোলনরত দুই শিক্ষার্থী ঢাকা মেডিকেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। এই খবর ছড়িয়ে পড়ার পরপরই আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা উপাচার্যের বাসভবনে যান। এরপর বাসভবনের প্রধান ফটক ভেঙে ভেতরে প্রবেশ করে আসবারপত্র ভাঙচুর করে। পরে সেগুলোতে আগুন ধরিয়ে দেয়। এ সময় বাসার সামনে রাখা উপাচার্যের দুটি প্রাইভেটকারও পুড়িয়ে দেয় শিক্ষার্থীরা।

এ ব্যাপারে ঢাবির উপাচার্য বলেন, ‘যারা এখানে হামলা করেছে তারা সন্ত্রাসী। তারা শিক্ষার্থী হতে পারে না। হামলাকারীরা বহিরাগত।’

খবর পেয়ে শতাধিক নেতাকর্মী নিয়ে রাত আড়াইটার দিকে উপাচার্যের বাসভবনে যান ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ ও সাধারণ সম্পাদক এস এম জাকির হোসাইন। এ সময় তারা আন্দোলনকারীদের ধাওয়া দিয়ে উপাচার্যের বাসার সামনে থেকে সরিয়ে দেন। এছাড়া খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যান আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানকও।

উল্লেখ্য, চাকরিতে কোটা সংস্কারের দাবিতে গতকাল বিকাল থেকে শাহবাগ এলাকা অবরোধ করে রাখে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। একপর্যায়ে রাত আটটার দিকে পুলিশের সঙ্গে তাদের সংঘর্ষ শুরু হয়।  পুলিশের লাঠিপেটা, কাঁদানে গ্যাসের শেল এবং গুলিতে অর্ধশতাধিক আহত হয়েছেন বলে বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে। আহতদের মধ্যে পুলিশের সদস্যও রয়েছেন।

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

bodybanner 00