ব্রেকিং নিউজঃ

টাঙ্গাইলে ছাত্রীকে ধর্ষণের দায়ে গৃহশিক্ষকের যাবজ্জীবন

টাঙ্গাইলে ছাত্রীকে ধর্ষণের দায়ে গৃহশিক্ষকের যাবজ্জীবন
bodybanner 00

টাঙ্গাইলে চতুর্থ শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণের দায়ে গৃহশিক্ষককে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে তাকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা ও অনাদায়ে আরো ছয় মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়। আজ বুধবার দুপুরে টাঙ্গাইল নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক শরীফ উদ্দিন আহমেদ এ সাজা দেন।

টাঙ্গাইলে ছাত্রীকে ধর্ষণের দায়ে গৃহশিক্ষকের যাবজ্জীবন

দণ্ডিত গৃহশিক্ষকের নাম তোফাজ্জল হোসেন হিরা। তাঁর বাড়ি টাঙ্গাইলের ভুঞাপুর উপজেলার ফলদা দক্ষিণপাড়া গ্রামে।

এ ব্যাপারে মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণে জানা গেছে, ভুঞাপুর উপজেলার ফলদা চাইল্ড কেয়ার হোমের শিক্ষক তোফাজ্জল হোসেন একই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের চতুর্থ শ্রেণির ওই ছাত্রীর গৃহশিক্ষক ছিলেন। তিনি ছাত্রীর বাড়িতে গিয়ে পড়াতেন। ২০১০ সালে ১ মার্চ তোফাজ্জল ছাত্রীর মাকে মোবাইল ফোনে জানান, তিনি অসুস্থ থাকায় পড়াতে যেতে পারবেন না। একই সঙ্গে ছাত্রীকে বই নিয়ে তাঁর বাড়িতে পাঠাতে বলেন। দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ওই ছাত্রী শিক্ষক তোফাজ্জলের বাড়িতে যায়। সেখানে তিনি ওই শিশুকে ধর্ষণ করেন। এরপরে দুপুর ২টার দিকে ছাত্রীটি বাড়িতে গিয়ে তার মাকে ঘটনাটি জানায় এবং অজ্ঞান হয়ে যায়। পরে শিশুটিকে টাঙ্গাইল মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে তার অবস্থার অবনতি হয়। পরবর্তীতে তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়। এ ঘটনায় শিশুটির বাবা একই বছরের ৫ মার্চ ভুঞাপুর থানায়  শিক্ষক তোফাজ্জল হোসেনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় আজ বুধবার আদালত এ রায় ঘোষণা করেন।

রাষ্ট্রপক্ষে সহকারী সরকারি কৌঁসুলি (এপিপি) অ্যাডভোকেট নাসিমুল আক্তার এবং আসামিপক্ষে অ্যাডভোকেট আরফান আলী মোল্লা মামলা পরিচালনা করেন।

অভিযুক্ত আসামি বর্তমানে টাঙ্গাইলের কারাগারে আছেন বলে কারা কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা গেছে।

 

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

bodybanner 00