ব্রেকিং নিউজঃ

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে রাস্তা মেরামতের নামে জায়গার মাটি জায়গায় দিয়ে রাস্তা সমান

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে রাস্তা মেরামতের নামে জায়গার মাটি জায়গায় দিয়ে রাস্তা সমান
bodybanner 00
রিয়াজ উদ্দীন (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধিঃ
কালীগঞ্জ মেইন বাসষ্ট্যান্ডের উপর দিয়ে যাওয়া ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের বড় বড় গর্তের কারনে মারাত্বক ভাবে বেড়েছে সড়ক দূর্ঘটনা।
গত এক সপ্তাহ ধরে বাসষ্ট্যান্ডে প্রায় দুই ফুট গভীরতার বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। তবুও কর্তৃপক্ষের আমলে আসছেনা।
শুক্রবার বেলা সাড়ে ১২ টার দিকে রাস্তার উপর খাদে পড়ে দুইটি যাত্রী বাহী ইজি বাইক উল্টে যায়। এতে মোট ৪ জন আহত হয়। স্থানীয়রা তাঁদের উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য বিভিন্ন হাসপাতাল ক্লিনিকে পাঠায়। এই ঘটনার পর রাস্তার উপর বিপদ সংকেত হিসেবে একটি কাঠের বোর্ড ও গাছের ডাল দিয়ে রাখা হয়। বিষয়টি স্থানীয়রা সড়ক ও জনপথে যোগাযোগ করলে কর্তৃপক্ষ একটি ভেকু দিয়ে জায়গার ইট, বালী ও খোয়া রাস্তা খুড়ে সমান করতে দেখা য়ায়। উৎসুক জনতা রাস্তা খুড়ে সমান করা দেখে বলছে জায়গার মাটি জায়গায়।
উল্লেখ্য গত ২৬/০৩/১৮ একই স্থানে মালবোঝাই দশ চাকার ঢাকাগামী এইটি ট্রাকের পেছনের চাকার টায়ারে বিকট শব্দে বিষ্ফোরন ঘটে। টায়ার বিষ্ফোরনের প্রচন্ড গতির বাতাস রাস্তার পাশে তিন পথচারীর শরীরে লেগে তিন জনই মারাত্বক ভাবে আহত হয়। এসময় ঐ বাতাসের গতি মাইক্রো ষ্ট্যান্ডে থাকা এইটি প্রাইভেট কার ও দুইটি মাইক্রোবাসের জানালার গ্লাসে লেগে গ্লাস ভেঙে চুরমার হয়ে য়ায়। স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে বিভিন্ন ডাক্তার খানা ও স্থানীয় ক্লিনিকে চিকিৎসা দেওয়া হয়। টায়ার বিষ্ফোরনের শব্দে আশপাশের লোকজন দিক-বিদিক ছোটাছুাটি শুরু করে। স্থানীয়রা জানায় এখানে দীর্ঘদিন ধরে রাস্তার নাজুক অবস্থার কারনে ৩/৪ পরপর দূর্ঘটনা ঘটছে। এই খারাপ রাস্তার কারণে কালীগঞ্জে অকালে ঝরে গিয়াছে অনেক প্রাণ। এত খবরা খবর প্রকাশিত হলেও কারও কোন মাথা ব্যাথা নাই। কোন কিছুতেই মেরামত করা হচ্ছে না কালীগঞ্জ মেইন ষ্ট্যান্ডের উপর দিয়ে যাওয়া ঢাকা-খুলনা মহাসড়ক। এই মহাসড়কের উপর দিয়ে প্রতিদিন ঢাকা, খুলনা, কুষ্টিয়াসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে হালকা ও ভারী যানবাহন ২৪ ঘন্টা চলাচল করে। কালীগঞ্জ মেইন বাসষ্ট্যান্ডের সড়ক খুবই ব্যস্ততম সড়ক। এর সড়কের উপর দিয়ে কোটচাঁদপুর, মহেশপুর, জীবননগর, চুয়াডাঙ্গা, দর্শনাসহ সব এলাকার মানুষের ঢাকা-খুলনা যাওয়ার একমাত্র সড়ক। সামান্য বৃষ্টি হলেই সড়কের এসব বড় বড় গর্ত ও রাস্তার উপর পানি জমে থাকার কারনে যানবাহনের চালকরা কোন কিছু না বুঝেই খাদের মধ্যে দিয়ে চলাচল করছে যার কারনে প্রতিদিন একাধিক দূর্ঘটনা ঘটছে।
এ ব্যাপারে গত-২৬/০৩/১৮ তারিখে সড়ক ও জনপথ বিভাগের বিভাগীয় উপ-প্রকৌশলী তানভির আহম্মেদের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তিনি বলেছিলেন, আমরা কাজ শুরু করে দিয়েছি আপনি দেখবেন মোবারকগঞ্জ চিনি কলের সামনে খোড়াখুড়ির কাজ শুরু হয়েছে। তিনি আরো জানান ঐ প্রোজেক্টের সাথেই এই কাজ করা হবে। আমি ঠিকাদারকে প্রেসার দিচ্ছি দ্রুত কাজ শেষ করার জন্য। আশা করছি ২/৩ দিনের মধ্যেই কাজ করতে করতে মেইন ষ্ট্যান্ডে পৌছে যাবে। ঐ সময় থেকে আজ ১৮ দিন অতিবাহিত হলেও সড়ক সংস্কারের বিষয়টি আমলে আনছেন না।
এ ব্যাপারে কালীগঞ্জ পৌরসভার প্যানেল মেয়র আশরাফুল আলম আশরাফের সাথে আলাপ করলে তিনি জানান, বিষয়টি আমি দেখছি যাতে দ্রুত এ সমস্যা সমাধান করা যায় তার জন্য আমি আন্তরিকতার সাথে চেষ্টা করবো।

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

bodybanner 00