জগন্নাথপুর- বিশ্বনাথ সড়কে সংস্কারের পর পূনঃরায় যানবাহন চলাচলে অনুপযোগী হয়ে পড়েছে

জগন্নাথপুর- বিশ্বনাথ সড়কে সংস্কারের পর পূনঃরায় যানবাহন চলাচলে অনুপযোগী হয়ে পড়েছে
bodybanner 00
মোঃ হুমায়ূন কবীর ফরীদি, জগন্নাথপুর
(সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ জগন্নাথপুর-বিশ্বনাথ সড়কের কেউন বাড়ি বাজার পর্যন্ত স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি) কর্তৃক ২০১৭-২০১৮ অর্থ বছরে ১৩কিলোমিটার
 অংশ পুনঃসংস্কার কাজ সম্পন্ন হওয়ার পর বছর যেতে না যেতেই বিভিন্ন অংশে পুনরায় ভাঙনের সৃষ্টি হয়েছে। সংস্কার কাজে অনিয়মের কারণে সড়কের বিভিন্ন স্থানে খানা-খন্দকের সৃষ্টি হয়েছে।
বিগত মাসের শুরু থেকে জগন্নাথপুর উপজেলা সদর থেকে হাসপাতাল মোড় পর্যন্ত সড়কটির বটেরতল ও হামজা কমিউনিটি সেন্টারের সামনে বিশাল ৩টি গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। গর্তগুলোতে মালবাহী ট্রাক, যাত্রীবাহী বাসসহ সকল প্রকার যানবাহন আটকে গিয়ে বিকল হয়ে পড়ছে। এছাড়াও সিএনজি অটোরিকশা, টমটম, রিকশা, মোটরসাইকেলসহ ছোট-বড় সকল প্রকার যানবাহন এসব গর্তে পড়ে গিয়ে প্রতিনিয়ত দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছে। সড়কের ওই স্থানে বিশাল ৩টি গর্তে বৃষ্টির পানি জমে থাকার কারণে যাতায়াত করা অধিকাংশ যানবাহন গর্তে পড়ে গিয়ে যানবাহনের ক্ষতির পাশাপাশি যাত্রী সাধারণেরও ব্যাপক ক্ষতি হচ্ছে। দীর্ঘ এক মাসেও সংস্কারের কোন উদ্যোগ নেয়নি
কর্তৃপক্ষ।
জরুরিভিত্তিতে সড়কটি সংস্কার করা না হলে জগন্নাথপুর উপজেলা সদরের সাথে সরাসরি যাত্রীবাহী বাস ও মালবাহী যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা করছেন ভুক্তভোগী জনসাধারণ। গত ১ জুন সকালে  সড়কের হামজা কমিউনিটি সেন্টারের সামনে সড়কটির বিশাল গর্তে সিমেন্ট কোম্পানির মালবোঝাই ট্রাক গর্তে আটকা পড়ে যায়। সড়কটির মাঝামাঝি স্থানে মাল বোঝাই ট্রাকটি আটকা পড়ায় সন্ধ্যা পর্যন্ত সড়কের ওই স্থানে ব্যাপক যানজটের সৃষ্টি হয়। রাত ৮টায় গর্তে আটকে পড়া ট্রাকটি উদ্ধারের পর যান চলাচল শুরু হয়।
জগন্নাথপুর-বিশ্বনাথ-সিলেট সড়কের
জগন্নাথপুর পৌর শহরের উপজেলা সদর থেকে হাসপাতাল পর্যন্ত সড়কটিতে ৩টি বড় গর্ত ও অন্যান্য স্থানে খানা-খন্দক সৃষ্টি হওয়ার বিষয়ে এলজিইডির জগন্নাথপুর উপজেলা প্রকৌশলী গোলাম সারোয়ার সড়কের সংস্কার কাজে তাদের অবহেলার কথা অস্বীকার করে “দৈনিক আগামীর সময়” জানান, জগন্নাথপুর-বিশ্বনাথ -সিলেট সড়কের কেউন বাড়ি বাজার পর্যন্ত পুনঃসংস্কার কাজের ঠিকাদারকে গর্তগুলো সংস্কারের জন্য তাগিদ দেয়া হয়েছে। সড়কে গর্ত হওয়া অংশে শিঘ্রই সংস্কার কাজ সম্পন্ন করা হবে।

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

bodybanner 00