জগন্নাথপুরে বিদুৎ সুবিধা থেকে বঞ্চিত একটি গ্রামের বাসিন্দা

জগন্নাথপুরে বিদুৎ সুবিধা থেকে বঞ্চিত একটি গ্রামের বাসিন্দা
bodybanner 00

জগন্নাথপুর(সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি:
বর্তমান সরকার জনগণের প্রতিটি ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে দিচ্ছেন, বিদ্যুৎ ব্যতীত কোনভাবেই কাঙ্খিত উন্নয়ন সম্ভব নয়।একটি দেশের উন্নয়নে বিদ্যুৎ অপরিহার্য। সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরের রানীগঞ্জ ইউনিয়নের রানীনগর গ্রামে দেখা যায় ব্যাতিক্রমী গ্রাম যে স্থানে উভয় দিকে বিদুতের আলো জ¦লে কিন্তু বিদ্যুৎ এর আলো নেই এই গ্রামে।
সরজমিনে গিয়ে জানা যায়, রানীগঞ্জ ইউনিয়নের প্রায় প্রত্যেক গ্রামে বিদ্যুতের আলোয় আলোকিত হচ্ছে।কিন্তু বিদ্যুৎ সংযোগের জন্য বার বার দরথাস্ত দেওয়ার পরও বিদ্যুৎ সংযোগে উদ্যোগ নেয়া হচ্ছেনা। এই গ্রামে রানীগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ের দুই জন শিক্ষক বসবাস করেন। দেখা যায় শত শত শিক্ষার্থী আদিযুগের হারিকেন ও কুপিবাতি জ¦ালিয়ে লেখা পড়া করে যাচ্ছেন। বিদ্যুৎ না থাকায় শিক্ষার্থীগন লেখা পড়ায় অনেক পিছিয়ে পরছেন। অনেকে আবার অভিযোগ করে বলেন, বিদ্যুৎ উন্নয়নের জোয়ারে দেশ বাসছে কিন্তু আমাদের এই ছোট গ্রামের দিকে কেউ নজর দিচ্ছেনা।
রানীগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ের অফিস সহকারী আশরাফুল আলম বলেন, বিদ্যুৎ না থাকায় আমাদের শিক্ষার্থীগন কষ্ট করে লেখা পড়া করে আসছে।আমাদের মনে হচ্ছে আদিম যুগে বসবাস করছি। আমার প্রাণের দাবি বর্তমান সরকার সহ স্থানীয় প্রতিমন্ত্রী মহোদয়ের কাছে জরুরী বিত্তিতে আমাদের গ্রামে বিদুৎ সংযোগ দিয়ে অন্ধকার মুক্ত করবেন।
রানীনগর গ্রামের বাসিন্দা বাজার ব্যবসায়ী সুদ্বীপ চন্দ্র বলেন, নতুন প্রযুক্তি ব্যবহার প্রায় সব গ্রামের মানুষ করছে।আমাদের ছোট গ্রামের মানুষ এ সুযোগ টা পাবনা কেন? বর্তমান সরকার তৃণমূল পর্যায়েই বিদ্যুৎ পৌছে দিচ্ছেন। সরকার ক্ষমতায় এসে বিদ্যুৎ খাতে ব্যাপক উন্নয়ন করেছেন। আমাদের গ্রামবাসীর প্রাণের দাবি যত দ্রুত সম্ভব গ্রামের বিদ্যুৎ সংযোগ দিয়ে অন্ধকার থেকে আমাদের গ্রামকে আলোকিত করবেন।

 

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

bodybanner 00