ব্রেকিং নিউজঃ

চিন থেকে লন্ডন! বিশ্বের দীর্ঘতম রেলপথ খুলে গেল

bodybanner 00

361চিনের বেজিং থেকে শুরু হল বিশ্বের দীর্ঘতম ট্রেন সফর। গন্তব্য লন্ডন। লন্ডন পৌঁছতে কতদিন সময় লাগবে? কেনই বা এই ভাবনা চিনের?

একটু দূরে কোথাও গন্তব্য হলে আমজনতা বেছে নেন ট্রেনকেই। আর হাতে সময় কম থাকলে বিমানই ভরসা হয়ে ওঠে। বিদেশ ভ্রমণে বেশিরভাগ ক্ষেত্রে বিমানই একমাত্র ভরসা। আর সেই দূরত্বটা যদি কয়েক হাজার মাইল হয়, তবে প্লেন ছাড়া আর কোনও উপায়ই থাকে না। এবার বদলে গেল সেই চিত্রটা।

চিনের বেজিং থেকে শুরু হল বিশ্বের দীর্ঘতম ট্রেন সফর। চিন পেরিয়ে ট্রেনটি পৌঁছবে লন্ডনে। সময় লাগবে ১৮ দিন। এই প্রথম চিন এবং লন্ডনের মধ্যে সরাসরি ট্রেনের মাধ্যমে যোগাযোগ হতে চলেছে।

গত রবিবার চিনের ঝেজিয়াং-এর ইউ ওয়েস্ট রেলওয়ে স্টেশন থেকে রওনা দেয় ট্রেনটি। প্রায় ১৮ দিন পর, ৮০০০ মাইল রাস্তা পার হয়ে ট্রেনটি থামবে ব্রিটিশ রাজধানী লন্ডনে। ট্রেনটি বেজিং থেকে রওনা হয়ে, কাজাখস্থান, রাশিয়া, বেলারুশ, পোল্যান্ড, জার্মানি, বেলজিয়াম, ফ্রান্স ঘুরে, তার পর গন্তব্যে পৌঁছবে বলে জানানো হয়েছে চিনের তরফে। এখনও পর্যন্ত বিশ্বের সবথেকে বেশি সময়ের ট্রেন সফর হতে চলেছে বলে জানানো হয়েছে।ট্রেনটি মূলত মালবাহী ট্রেনের কাজ করবে। প্রথম বার চিন থেকে, বিভিন্ন জিনিসপত্র, ঘরোয়া সামগ্রী, ব্যাগ, সুটকেস, জামাকাপড় প্রভৃতি নিয়ে লন্ডনের উদ্দেশে রওনা দিয়েছে ট্রেনটি। জানা গিয়েছে, চিনের প্রেসিডেন্ট শি জিংপিং-এর স্বপ্নের প্রকল্প ‘ওয়ান বেল্ট, ওয়ান রোড’-এর অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ অংশ হল দুই দেশের মধ্যে এই ট্রেন পরিষেবা। এই ট্রেন যে পথ দিয়ে লন্ডনে পৌঁছবে, সেই পথকে ‘নিউ সিল্ক রুট’ বলা হচ্ছে। ২০০ খ্রিষ্টপূর্বাব্দে চিন থেকে ইউরোপ এবং আফ্রিকায় রেশম আমদানি করতে যে পথ ব্যবহার করা হত, সেই পথকে ‘সিল্ক রুট’ বলা হতো।ইউরোপের সঙ্গে বাণিজ্যিক সম্পর্ক দৃঢ় করতেই এই পদক্ষেপ করা হয়েছে বলে জানিয়েছে চিন। তবে শুধু ইউরোপই নয়, এই পথ ব্যবহারে এশিয়া এবং মধ্য প্রাচ্যের সঙ্গেও চিনের বাণিজ্যিক সম্পর্ক বেড়ে উঠবে বলে মনে করছে বিশেষজ্ঞ মহল।

ধামাকা অফার চলছে !BRAND BAZAAR এ LED / 3D/ Smart / 4K TV AC , 40- 65% ডিস্কাউন্ট  !

আরও পন্য দেখতে ছবির উপরে ক্লিক করুন6

About The Author

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

bodybanner 00