‘গণতন্ত্র ও সাংবিধানিক ধারা অব্যাহত রাখুন’

‘গণতন্ত্র ও সাংবিধানিক ধারা অব্যাহত রাখুন’
bodybanner 00

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, দেশের গণতান্ত্রিক ও সাংবিধানিক ধারা অব্যাহত রাখার পাশাপাশি জনকল্যাণমূলক কাজে ভবিষ্যতে সেনাবাহিনীকে অধিকতর গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখতে হবে।

 

বৃহস্পতিবার সকালে দেশের দক্ষিণ জনপদে পায়রা নদীর তীরে পটুয়াখালীর লেবুখালিতে নবনির্মিত শেখ হাসিনা সেনানিবাস উদ্বোধনকালে এ আহ্বান জানান তিনি। প্রায় ছয় বছর পর বরিশাল সফর করছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। দ্বিতীয় মেয়াদে সরকার গঠনের পর এটাই তার প্রথম সফর।

 

পাশাপাশি ৭ পদাতিক ডিভিশনের ডিভিশন সদর দফতর এবং দুটি ব্রিগেড সদর দফতরসহ মোট ১১টি ইউনিটের বর্ণিল পতাকা উত্তোলন অনুষ্ঠানে অংশ গ্রহণ করেন তিনি। এছাড়া পটুয়াখালী জেলার ১৩টি উন্নয়নমূলক প্রকল্পের উদ্বোধন ও একটি প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্থর স্থাপন করেন প্রধানমন্ত্রী।

 

শেখ হাসিনা বলেন, মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্বুদ্ধ দেশপ্রেমিক, পেশাদার সশস্ত্র বাহিনীকে বিশ্বমানের আধুনিক বাহিনীতে উন্নীত করতে তাঁর সরকার বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছে। তারই ধারাবাহিকতায় ২০১৬ সালে এই ডিভিশনটি স্থাপনের নীতিগত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।

 

প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশের মানুষ উন্নয়নের সুফল ভোগ করতে শুরু করেছে। আমরা দেশের উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছি। আমরা নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু তৈরি করছি। আমরা বিদ্যুতের উন্নয়ন করেছি।

 

আজ ৭ পদাতিক ডিভিশনকে পূর্ণতা দেয়ার লক্ষ্যে ডিভিশন সদর দফতর এবং দুটি ব্রিগেড সদর দফতরসহ মোট ১১টি ইউনিটের পতাকা উত্তোলিত হলো। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর একটি চৌকস দল প্রধানমন্ত্রীকে গার্ড অব অনার প্রদান করে।

 

এর আগে প্রধানমন্ত্রী সকালে লেবুখালি সেনানিবাসে পৌঁছলে সেনাবাহিনী প্রধান আবু বেলাল মুহম্মদ শফিউল হক এবং ৭ পদাতিক ডিভিশনের জিওসি মেজর জেনারেল মো. সাইফুল আলম তাঁকে অভ্যর্থনা জানান। এর পরে প্রধানমন্ত্রী এমপি গেটে ফলক উন্মোচনের মাধ্যমে শেখ হাসিনা সেনানিবাসের উদ্বোধন করেন।

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

bodybanner 00