কুকুর কামড়ালে যা করণীয়

কুকুর কামড়ালে যা করণীয়
bodybanner 00

কুকুরের কামড় অনেক  যন্ত্রণাদায়ক এবং মারাত্নক। এটি থেকে জলাতঙ্ক রোগ হতে পারে। রেবিস নামক যে ভাইরাস থেকে জলাতঙ্ক রোগ হয় তা কুকুরের লালা থেকে  ক্ষতস্থানে লেগে যায় এবং সেখান থেকে স্নায়ুতে পৌঁছে জলাতঙ্ক রোগের সৃষ্টি করে। সময় মতো চিকিৎসা না করা হলে জলাতঙ্কের কারণে মৃত্যু পর্যন্ত হতে পারে। এ কারণে কুকুরে কামড় দিলে কিছু পদক্ষেপ নেওয়া জরুরি। যেমন-

১. যত দ্রুত সম্ভব রক্তপাত বন্ধ করতে হবে। এজন্য ক্ষত স্থান কিছুক্ষন চাপ দিয়ে ধরে থাকুন।

২. প্রথমে একটি পরিষ্কার তোয়ালে দিয়ে ক্ষত স্থানটি চেপে ধরুন। তার পর ক্ষত স্থানটি ভালভাবে পরিষ্কার করুন। অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল সাবান বা অ্যান্টিবায়োটিক ক্রিম ব্যবহার করতে পারেন। তবে ক্ষত স্থান পরিষ্কার করার সময় খুব বেশি চাপ দিয়ে ঘষাঘষি করা ঠিক নয়।

৩. ক্ষতস্থানটিতে অ্যান্টিবায়েটিক ক্রিম  লাগানোর পর একটি গজ কাপড় দিয়ে ব্যান্ডেজ করে ফেলুন। কারণ খোলা থাকলে এতে রোগ জীবাণু প্রবেশ করতে পারে।

৪. প্রাথমিক চিকিৎসার পর আক্রান্তকে দ্রুত নিকটস্থ স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যান। চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী আক্রান্তকে টিটেনাস ইনজেকশন দিতে হবে। কুকুর কামড়ের ২৪ ঘণ্টার মধ্যে এই ইনজেকশন দেওয়া উচিত। এছাড়া অন্যান্য ব্যবস্থাপত্রও গ্রহন করা প্রয়োজন।

কুকুড়ের কামড়ে আতঙ্কিত হবার কিছু নেই। যত তাড়াতাড়ি সম্ভব প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দিলে রোগী দ্রুতই সুস্থ হয়ে উঠবে

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

bodybanner 00