ব্রেকিং নিউজঃ

এরশাদকে ইমামতির দায়িত্ব দিয়েছে ইসলামি মহাজোট

এরশাদকে ইমামতির দায়িত্ব দিয়েছে ইসলামি মহাজোট
bodybanner 00

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদকে ইমামতির দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে জানিয়ে ইসলামি মহাজোটের চেয়ারম্যান আবু নাছের ওয়াহেদ ফারুক বলেছেন, ‘ইমামতির জন্য কিছু যোগ্যতার প্রয়োজন, সেটা এরশাদের আছে। তাই তাকে আমাদের নেতৃত্ব বা ইমামতির দায়িত্ব দিয়েছি।’ গতকাল রাজধানীর কাকরাইলে ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের সঙ্গে জাতীয় পার্টির (জাপা) নির্বাচনী সমঝোতা উপলক্ষে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। এর আগে খেলাফত মজলিসের সঙ্গে ছয় দফা চুক্তির ভিত্তিতে একটি নির্বাচনী সমঝোতা করেন জাপা চেয়ারম্যান।

ছয় দফা চুক্তির উল্লেখযোগ্য হচ্ছে পবিত্র কোরআন-সুন্নাহবিরোধী আইন না করা, সংবিধানে আল্লাহর প্রতি আস্থা ও বিশ্বাস কথাটি পুনঃস্থাপন, কওমি শিক্ষার সনদের স্বীকৃতি দিয়ে জাতীয় সংসদে আইন পাস ও সব ধর্মের লোকদের ধর্মীয় স্বাধীনতা নিশ্চিত করা। গত বছর ৩৪টি ইসলামি দল নিয়ে জোট গঠন করে এরশাদের সঙ্গে ইসলামি মহাজোট করেন আবু নাছের ওয়াহেদ। এরশাদের নেতৃত্বে বর্তমানে ৫৮ দলের সম্মিলিত জাতীয় জোট আছে। খেলাফত মজলিস এর সঙ্গে যুক্ত হওয়ায় সম্মিলিত জাতীয় জোটে জাতীয় পার্টিসহ মোট দলের সংখ্যা দাঁড়াল ৬০। খেলাফত মজলিসের সঙ্গে নির্বাচনী সমঝোতায় নিজের সন্তুষ্টি প্রকাশ করে এরশাদ বলেন, ‘খেলাফত মজলিস একটি অভিজ্ঞ রাজনৈতিক দল। তারা জাতীয় পার্টির সঙ্গে নির্বাচনী ঐক্য করায় আমরা শক্তিশালী হয়েছি। ইসলামি দলগুলো ঐক্যবদ্ধ হচ্ছে, এই সংঘবদ্ধ প্রচেষ্টায় ৩০০ আসনে প্রার্থী দেওয়া হবে। প্রমাণ করব, আমরা ক্ষমতায় আসতে পারি।’ নির্বাচনী সমাঝোতা প্রসঙ্গে এরশাদ বলেন, তার দল একটি জোটে আছে। তবে নির্বাচনী জোট কাদের সঙ্গে হবে, তা নিয়ে এখনো বলার সময় আসেনি। বিএনপি নির্বাচনে এলে এক ধরনের কৌশল হবে, আর না এলে তিনশ আসনেই মনোনয়ন দেওয়ার প্রস্তুতি আছে জাতীয় পার্টির। এ সময় সুুুুষ্ঠু পরিবেশ সৃষ্টি হলে বর্তমান কমিশনই সুষ্ঠু নির্বাচন করতে পারবে বলে মন্তব্য করেন তিনি। অনুষ্ঠানে খেলাফত মজলিসের মহাসচিব মাওলানা মাহফুজুল হক তার বাবা প্রয়াত শায়খুল হাদিস আল্লামা আজিজুল হকের বাংলায় অনুবাদ করা কয়েক খ-ের বোখারি শরিফ এরশাদকে উপহার দেন। আরও বক্তব্য দেন বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের আমির প্রিন্সিপাল আল্লামা হাবিবুর রহমান, জাতীয় পার্টির কো-চেয়ারম্যান জিএম কাদের, মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার, বাংলাদেশ ইসলামী খেলাফতে মজলিসের মহাসচিব মাওলানা ইসমাইল নুরপুরী, বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্ট মহাসচিব এমএ মতিন প্রমুখ।

Facebook Comments

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

bodybanner 00