ইভিএমের ২ কেন্দ্রের ফল: আ’লীগ ৭৭৭, বিএনপি ৭১০

ইভিএমের ২ কেন্দ্রের ফল: আ’লীগ ৭৭৭, বিএনপি ৭১০
bodybanner 00

খুলনা সিটি কর্পোরেশন (কেসিসি) নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শেষ হয়েছে। মঙ্গলবার সকাল ৮টা থেকে ভোটগ্রহণ শুরু হয়ে শেষ হয় বিকেল ৪টায়। এখন প্রতিটি কেন্দ্রে চলছে ভোট গণনা। নির্বাচনে দুটি কেন্দ্রে ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিনের মাধ্যমে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। ওই দু’টি কেন্দ্রের ফল ঘোষণা হয়েছে।

পিটিআই জসিম উদ্দিন হোস্টেলের নীচতলা ইভিএম কেন্দ্রে আওয়ামী লীগ মেয়র প্রার্থী তালুকদার আব্দুল খালেক ৫০৫ এবং বিএনপি প্রার্থী নজরুল ইসলাম মঞ্জু পেয়েছেন ৫১১ ভোট। অপর ২৪ নং ওয়ার্ডের সোনাপোতা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে আওয়ামী লীগ মেয়র প্রার্থী তালুকদার আব্দুল খালেক ২৭২ এবং বিএনপি প্রার্থী নজরুল ইসলাম মঞ্জু পেয়েছেন ১৯৯ ভোট। দুটি কেন্দ্রের মোট ফলাফলে তালুকদার আবদুল খালেক পেয়েছেন ৭৭৭ ভোট এবং নজরুল ইসলাম মঞ্জু পেয়েছেন ৭১০ ভোট।

নির্বাচন কমিশনের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, সকাল থেকেই ভোট কেন্দ্রগুলোতে ভোটাররা জড়ো হয়েছিলেন। সারাদিন উৎসবমুখর পরিবেশে শান্তিপূর্ণভাবেই ভোটগ্রহণ হয়েছে।

নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা ইউনুচ আলী জানান, সিটির ২৮৯টি কেন্দ্রের মধ্যে তিনটি কেন্দ্রে অনিয়মের কারণে ভোটগ্রহণ স্থগিত হয়েছে। এছাড়াও কয়েকটি কেন্দ্রের-ভেতরে বাইরে গোলযোগ, অনিয়ম, এজেন্টদের বাধা ও নির্বাচনী ক্যাম্প ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে।

৪৫ দশমিক ৬৫ বর্গকিলোমিটারের খুলনা সিটিতে ভোটার ৪ লাখ ৯৩ হাজার ৯৩ জন। ৩১টি ওয়ার্ডে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন পাঁচজন, কাউন্সিলর পদে লড়ছেন ১৩৯ জন। আর সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলরের ১০টি পদে লড়ছেন আরও ৩৯ জন। কেসিসির সর্বশেষ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছিল ২০১৩ সালের ১৫ জুন।

মেয়র পদে যে পাঁচজন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন তারা হলেন- আওয়ামী লীগের তালুকদার আবদুল খালেক (নৌকা), বিএনপির নজরুল ইসলাম মঞ্জু (ধানের শীষ), জাতীয় পার্টির এসএম শফিকুর রহমান (লাঙল), ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের অধ্যক্ষ মাওলানা মুজ্জাম্মিল হক (হাত পাখা) এবং বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি-সিপিবির মিজানুর রহমান বাবু (কাস্তে)।

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

bodybanner 00