অ্যাটর্নি জেনারেলের ৯ বছর পূর্তি আওয়ামী লীগের রাজনীতি ব্যক্তিকেন্দ্রিক নয় আদর্শের

অ্যাটর্নি জেনারেলের ৯ বছর পূর্তি আওয়ামী লীগের রাজনীতি ব্যক্তিকেন্দ্রিক নয় আদর্শের
bodybanner 00

 মোঃ মানিক মিয়া, স্টাফ রিপোর্টার :

অ্যাটর্নি জেনারেল অ্যাডভোকেট মাহবুবে আলম বলেছেন, আওয়ামী লীগের রাজনীতি ব্যক্তিকেন্দ্রিক নয় আদর্শের। কারণ বঙ্গবন্ধু নেই, জাতীয় চার নেতা নেই; কিন্তু আদর্শের জন্য আওয়ামী লীগ টিকে আছে। তিনি শুক্রবার লৌহজংয়ে পদ্মার চরে দরিদ্র শীতার্ত মানুষ ও মুক্তিযোদ্ধাদের মাঝে শীতবস্ত্র (কম্বল) বিতরণকালে এসব কথা বলেন।

অ্যাটর্নি জেনারেলের ৯ বছর পূর্তি আওয়ামী লীগের রাজনীতি ব্যক্তিকেন্দ্রিক নয় আদর্শের

অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম শুক্রবার দিনব্যাপী লৌহজং উপজেলার লৌহজং-তেউটিয়া ইউনিয়নের পাইকারা চরে আশ্রয়ণ প্রকল্পে ৫ শ, মুক্তিযোদ্ধাদের মাঝে ২ শ শীতবস্ত্র বিতরণ ও লৌহজং বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ মাঠে চলমান উন্নয়ন মেলা পরিদর্শন করেন। লৌহজং উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ মিলনাতয়নে কমান্ডার মাহবুব-উল-আলম বাহারের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির ভাষণে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বলেন, আজ ১২ জানুয়ারি আমার জন্য বিশেষ দিন। কারণ, অ্যাটর্নি জেনারেল হিসেবে আমার ৯ বছর পূর্ণ হলো আজ। বাংলাদেশের ইতিহাসে এটা নেই। নেত্রী আমাকে কেন এতদিন উনিই ভালো জানেন। তবে অ্যাটর্নি জেনারেল হয়েছি বলেই বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলা, জেলহত্যা মামলা ও যুদ্ধাপরাধীদের বিরুদ্ধে মামলা পরিচালনা করতে পেরেছি। আর সম্প্রতি বীরশ্রেষ্ঠ রুহুল আমিনের সমাধিতে শ্রদ্ধা জানাতে গিয়ে দেশের প্রধানমন্ত্রী ও রাষ্ট্রপতির মতো গার্ড অব অনারসহ রাষ্ট্রীয় সম্মান দিতে পেরেছি-অ্যাটর্নি জেনারেল হিসেবে এতাই আমার গর্ব করার মতো বিষয়। এসময় আরও বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমান্ড কাউন্সিলের কেন্দ্রীয় মহাসচিব (অর্থ) বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. আবুল বাসার, লৌহজং উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান সিরাজুল আলম ফুকু, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সেলিম আহমেদ মোড়ল, ডেপুটি কমান্ডার মহিউদ্দিন বাবুল মুন্সী, বীর মুক্তিযোদ্ধা সেকান্দর হোসেন বাদল। আরও উপস্থিত ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মাসুদ হাসান চৌধুরী পরাগ, সাবেক কমান্ডার খলিলুর রহমান প্রমুখ। উল্লেখ্য, অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমের পৈত্রিক বাড়ি লৌহজং উপজেলার মৌছামান্দ্রা গ্রামে। তিনি বেশ কয়েক বছর ধরে এলাকায় গণসংযোগ করে আসছেন। এরই অংশ হিসেবে লৌহজং ও টঙ্গীবাড়ি উপজেলার উচ্চ বিদ্যালয়গুলোতে মুক্তিযুদ্ধের দলিল, বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্মজীবনী বই এবং শীতকালে দরিদ্রদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করে আসছেন। গত বছর মার্চে মুন্সীগঞ্জ-২ আসন থেকে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন পেলে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন বলে ঘোষণা দিয়েছেন। অ্যাটর্নি জেনারেলের ৯ বছর পূর্তি আওয়ামী লীগের রাজনীতি ব্যক্তিকেন্দ্রিক নয় আর্দশের মোঃ মানিক মিয়া. মুন্সীগঞ্জ॥ অ্যাটর্নি জেনারেল অ্যাডভোকেট মাহবুবে আলম বলেছেন, আওয়ামী লীগের রাজনীতি ব্যক্তিকেন্দ্রিক নয় আদর্শের। কারণ বঙ্গবন্ধু নেই, জাতীয় চার নেতা নেই; কিন্তু আদর্শের জন্য আওয়ামী লীগ টিকে আছে। তিনি শুক্রবার লৌহজংয়ে পদ্মার চরে দরিদ্র শীতার্ত মানুষ ও মুক্তিযোদ্ধাদের মাঝে শীতবস্ত্র (কম্বল) বিতরণকালে এসব কথা বলেন। অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম শুক্রবার দিনব্যাপী লৌহজং উপজেলার লৌহজং-তেউটিয়া ইউনিয়নের পাইকারা চরে আশ্রয়ণ প্রকল্পে ৫ শ, মুক্তিযোদ্ধাদের মাঝে ২ শ শীতবস্ত্র বিতরণ ও লৌহজং বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ মাঠে চলমান উন্নয়ন মেলা পরিদর্শন করেন। লৌহজং উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ মিলনাতয়নে কমান্ডার মাহবুব-উল-আলম বাহারের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির ভাষণে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বলেন, আজ ১২ জানুয়ারি আমার জন্য বিশেষ দিন। কারণ, অ্যাটর্নি জেনারেল হিসেবে আমার ৯ বছর পূর্ণ হলো আজ। বাংলাদেশের ইতিহাসে এটা নেই। নেত্রী আমাকে কেন এতদিন উনিই ভালো জানেন। তবে অ্যাটর্নি জেনারেল হয়েছি বলেই বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলা, জেলহত্যা মামলা ও যুদ্ধাপরাধীদের বিরুদ্ধে মামলা পরিচালনা করতে পেরেছি। আর সম্প্রতি বীরশ্রেষ্ঠ রুহুল আমিনের সমাধিতে শ্রদ্ধা জানাতে গিয়ে দেশের প্রধানমন্ত্রী ও রাষ্ট্রপতির মতো গার্ড অব অনারসহ রাষ্ট্রীয় সম্মান দিতে পেরেছি-অ্যাটর্নি জেনারেল হিসেবে এতাই আমার গর্ব করার মতো বিষয়। এসময় আরও বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমান্ড কাউন্সিলের কেন্দ্রীয় মহাসচিব (অর্থ) বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. আবুল বাসার, লৌহজং উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান সিরাজুল আলম ফুকু, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সেলিম আহমেদ মোড়ল, ডেপুটি কমান্ডার মহিউদ্দিন বাবুল মুন্সী, বীর মুক্তিযোদ্ধা সেকান্দর হোসেন বাদল। আরও উপস্থিত ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মাসুদ হাসান চৌধুরী পরাগ, সাবেক কমান্ডার খলিলুর রহমান প্রমুখ। উল্লেখ্য, অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমের পৈত্রিক বাড়ি লৌহজং উপজেলার মৌছামান্দ্রা গ্রামে। তিনি বেশ কয়েক বছর ধরে এলাকায় গণসংযোগ করে আসছেন। এরই অংশ হিসেবে লৌহজং ও টঙ্গীবাড়ি উপজেলার উচ্চ বিদ্যালয়গুলোতে মুক্তিযুদ্ধের দলিল, বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্মজীবনী বই এবং শীতকালে দরিদ্রদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করে আসছেন। গত বছর মার্চে মুন্সীগঞ্জ-২ আসন থেকে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন পেলে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন বলে ঘোষণা দিয়েছেন।#

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

bodybanner 00